শনিবার ০৮ আগস্ট ২০২০
Online Edition

জনগণ ভোট দেয়ার সুযোগ পেলে আ’লীগকে খুঁজে পাওয়া যাবে না -ব্যারিস্টার মওদুদ

গতকাল শনিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে বাংলাদেশ লেবার পার্টি আয়োজিত প্রতিহিংসার রাজনীতি : জাতীয় নির্বাচন ও বর্তমান প্রেক্ষাপট শীর্ষক আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ -সংগ্রাম

স্টাফ রিপোর্টার : জনগণ একবার নির্বিগ্নে ভোট দেয়ার সুযোগ পেলে আওয়ামী লীগকে খুঁজে পাওয়া যাবে না বলে মন্তব্য করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেছেন,আওয়ামী লীগ চায় খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখে নির্বাচন করে ক্ষমতা দখল করতে। কিন্তু এ সুযোগ দেশের মানুষ আর আপনাদের দিবে না। জনগণকে ভোট দেয়ার সুযোগ দিন তাহলে দেখবেন আপনাদের কি অবস্থা হয়। মানুষ ভোট দিতে পারলে আওয়ামী লীগকে আর খুঁজে পাওয়া যাবে না। বিএনপিকে ভোট দিয়ে খালেদা জিয়াকে প্রধানমন্ত্রী বানাবে।
‘প্রতিহিংসার রাজনীতি: জাতীয় নির্বাচন ও বর্তমান প্রেক্ষাপট’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। গতকাল শনিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে বাংলাদেশ লেবার পার্টি আলোচনা সভার আয়োজন করে।
ব্যারিস্টার মওদুদ বলেন, আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে পরাজিত করতে কোনো শ্লোগান দরকার হবে না। খালেদা জিয়া আমাদের সাথে থাকবেন আর শ্লোগান হবে ৭০ টাকা দরে চাল খাবো না নৌকায় ভোট দিব না, ১৫০ টাকায় পেঁয়াজ খাবো না নৌকায় ভোট দিব না।
প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ করে মওদুদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী হাসিনা ওয়াজেদ আমার প্রতি ক্ষুব্ধ। আমার মনে হয় আমার বাড়ি নিয়েও উনার মনে শান্তি আসে নাই। তবে উনার প্রতি আমার কোনো রাগ নাই। কারণ তিনি যেভাবে রাষ্ট্র পরিচালনা করছেন সবকিছুই ঠিক হতো যদি তিনি একটু সংযত হতেন।
বর্তমান শিক্ষা ব্যবস্থার নানান অনিয়ম ও দুর্নীতির সমালোচনায় তিনি বলেন, এতোদিন ধরে জেনে এসেছি শিক্ষা জাতির মেরুদ- অথচ আজ দলীয়করণ ও অর্থ বাণিজ্যের মাধ্যমে সেই মেরুদণ্ডকে দুর্বল করে দিয়েছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। শুধু তাই নয় এই সরকারের মদদপুষ্ট লোকেরাই এই প্রশ্নপত্র ফাঁসের সাথে জড়িত। যা প্রমাণিত হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যে, তিনি বলেছেন, প্রশ্নফাঁস নতুন ঘটনা নয় অতীতেও প্রশ্নফাঁস হয়েছে।
রাষ্ট্রীয় খরচে প্রধানমন্ত্রীর নৌকায় ভোট চাওয়া প্রসঙ্গে মওদুদ বলেন, রাষ্ট্রীয় খরচে ভোট চাওয়া অনৈতিক ও বেআইনি। এটা জনগণের সাথে প্রতারণা ছাড়া কিছুই নয়।
নির্বাচন কমিশনকে উদ্দেশ করে প্রবীণ এই আইনজীবী বলেন, সরকারি খরচে ভোট চাওয়া বন্ধ করেন নতুবা বিএনপিকেও অনুমতি দেন যাতে আমরাও ধানের শীষে ভোট চাইতে পারি তাহলেই বুঝবো দেশে আইনের শাসন আছে আইনের শাসন প্রয়োগেও সমতা বিধান আছে।
একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনে সংবিধান কোনো বাধা হতে পারে না বলেও মন্তব্য করেন বিএনপির এই  নীতিনির্ধারক।
 লেবার পার্টির  সভাপতি ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরানের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন, নিতাই রায় চৌধুরী, নির্বাহী কমিটির সদস্য রফিক শিকদার প্রমুখ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ