শনিবার ১৫ আগস্ট ২০২০
Online Edition

ভারত আমাদের অনুগ্রহ করেনি

 

১ মার্চ, জি নিউজ : ভারতের প্রেসিডেন্ট নরেন্দ্র মোদির প্রতি দ্বিতীয়বারের মতো ক্ষোভ প্রকাশ করলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। দুই সপ্তাহের মধ্যে একই বিষয়ে এই ক্ষোভ প্রকাশ করতে দেখা গেল তাকে।

ট্রাম্প বলেন, নরেন্দ্র মোদি খুবই ভাল মানুষ, কিন্তু তাতে আমেরিকার কোনও লাভ হচ্ছে না।

প্রধানত হার্লে ডেভিডসন মোটরবাইকের উপর ভারত সরকারের ‘চড়া আমদানির শুল্কে’র কারণেই বিরক্তি প্রকাশ করেছেন ট্রাম্প। এদিন নরেন্দ্র মোদির শরীরি ভাষা অনুকরণ করে ( যেভাবে মোদি হাত জোড় করে ‘নমস্তে’ বলেন) ট্রাম্প বলেন, “আমি যখন এ বিষয়ে নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে কথা বলি, তিনি বলেন শুল্কের হার কমিয়ে ৫০% করে দেওয়া হবে। কিন্তু, এখনও পর্যন্ত সেসব কিছুই হল না। তিনি সম্ভবত মনে করছেন যে এতে আমাদের অনুগ্রহ করা হবে। কিন্তু আদতে তা নয়।”

ট্রাম্পের কথা অনুযায়ী মোদি তাকে বলেছিলেন, আগের আমলে আমদানি শুল্ক ৭৫ শতাংশেরও বেশি ছিল। কিন্তু মোদী সরকারই তা কমিয়ে ৭৫ শতাংশ করেছে। এটাকেও কমিয়ে ৫০ শতাংশ করা হবে বলে নাকি কথা দিয়েছিলেন মোদী।

মোদীর এই প্রতিশ্রুতিকেই এদিন বিধেঁছেন ট্রাম্প। বিদ্রুপ করে তিনি বলেন, “কি বলি বলুন তো! আমার কি এই কথা শুনে রোমাঞ্চিত হওয়া উচিত!”

প্রসঙ্গত, নিজের নির্বাচনী প্রচারের সময় থেকেই ‘আমেরিকা ফার্স্ট’-এর কথা বলে আসছেন ট্রাম্প। বাণিজ্য ক্ষেত্রে আমেরিকার স্বার্থ ক্ষুণœ হলে যে তিনি কোনও রকম আপস করবেন না সেই বার্তাও বহুবার এসেছে ওভাল অফিস থেকে। পাশাপাশি, ভারতের প্রতি মার্কিন প্রেসিডেন্টের এই বার্তাকে নরমে গরমে চলার নীতি বলেই মনে করছে আন্তর্জাতিক মহল।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ