বুধবার ১২ আগস্ট ২০২০
Online Edition

সরাইলে একই স্থানে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের পাল্টা-পাল্টি সভা আহ্বান ॥ ১৪৪ ধারা জারি

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সংবাদদাতা : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে একই সময় একই জায়গায় ছাত্রলীগের বিবাদমান দুই গ্রুপের পাল্টাপাল্টি সভা আহ্বানকে কেন্দ্র করে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি অবনতির আশঙ্কায় ১৪৪ ধারা জারি করেছে উপজেলা প্রশাসন। একই সাথে উপজেলার সদরে সব ধরনের সভা-সমাবেশ ও গণজমায়েত নিষিদ্ধ করা হয়। শুক্রবার রাত ১২টা থেকে শনিবার থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত সেখানে ১৪৪ ধারা বলবৎ থাকবে।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সরাইল উপজেলা ছাত্রলীগের নবগঠিত কমিটির আহ্বায়ক জসিম খান ও যুগ্ম আহ্বায়ক আফসার উদ্দিন শনিবার বিকেলে উপজেলা সদরে ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল উপজেলা সদরের শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে নব-গঠিত উপজেলা ছাত্রলীগের পরিচিতি সভা আহ্বান করে।
এদিকে নবগঠিত কমিটিকে অবৈধ দাবি করে তাদেরকে প্রতিহত করার ঘোষণা দিয়ে একই সময়ে শহীদ মিনার এলাকায় পাল্টা সমাবেশ আহ্বান করে সদ্য সাবেক কমিটির সহ-সভাপতি গিয়াস উদ্দিন সানাউল্লাহ সেলুর গ্রুপ।
এ নিয়ে শুক্রবার রাত থেকেই উপজেলা সদরে উত্তেজনা বিরাজ করতে থাকে। পরে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে শুক্রবার রাতে ১৪৪ ধারা জারি করে উপজেলা প্রশাসন। শুক্রবার রাত ১২টা থেকে শনিবার রাত ১২টায় পর্যন্ত উপজেলা সদরে সব ধরনের সভা-সমাবেশ ও গণজমায়েত নিষিদ্ধ করা হয়।
এ ব্যাপারে সরাইল উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক জসিম খান বলেন, আমরা উপজেলা ছাত্রলীগের সিদ্ধান্তক্রমে গত ২১ ফেব্রুয়ারি উপজেলা সদরে আনন্দ র‌্যালি ও পরিচিতি সভা আহ্বান করি। শনিবার বিকেল ৩টার সময় আমাদের আনন্দ র‌্যালি ও পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। আমাদের পরিচিতি সভাকে বানচাল করার জন্য একটি বিশেষ মহলের প্ররোচনায় গত শুক্রবার একই স্থানে সেলু পাল্টা সভা আহ্বান করে। আমাদের বৈধ কমিটিকে পরিচিতি সভা করার সুযোগ না দিয়ে উপজেলা প্রশাসন শুক্রবার রাতে সেখানে ১৪৪ ধারা জারি করে।
এ ব্যাপারে সরাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ মফিজ উদ্দিন ভূইয়া বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, উপজেলা সদরে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। আমরা কাউকেই বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে দেবো না।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ