বুধবার ১২ আগস্ট ২০২০
Online Edition

গণঅভ্যুত্থানের মধ্য দিয়ে সরকারের পতন হবে -খন্দকার মাহবুব

স্টাফ রিপোর্টার : গণঅভ্যুত্থানের মধ্য দিয়ে এই সরকারের পতন ঘটানো হবে বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান খন্দকার মাহবুব হোসেন। তিনি বলেন, বাংলাদেশের মানুষেরও ধৈর্যের সীমা রয়েছে। আমাদের এ শান্তিপ্রিয় আন্দোলন পর্যায়ক্রমে গণ আন্দোলনে রূপ নেবে, অতীতে যা হয়েছে। স্বৈরাচারী সরকার কখনও ইচ্ছাকৃতভাবে যায় না। গণ অভ্যুত্থানের মধ্য দিয়েই তাদের পতন ঘটাতে হয়েছে। এবারও তাই হবে।
গতকাল শনিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে আয়োজিত এক প্রতিবাদ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। বিএনপির চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে এ প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী কর্মজীবী দল।
মাহবুব হোসেন বলেন, আজকে যদি আমরা মিছিল করতাম, হরতাল দিতাম, তাহলে সরকারি বাহিনী মিছিলে ঢুকে গাড়ি পোড়াতো, পেট্রোল বোমা মারত, অতীতে যা হয়েছে। সেই কারণেই আমরা অত্যন্ত সচেতনভাবে দেশে যাতে অরাজক পরিস্থিতি সৃষ্টি না হয় তাই শান্তিপূর্ণভাবে আন্দোলন করে যাচ্ছি। এর অর্থ এই নয় যে, বিএনপির আন্দোলন করার ক্ষমতা নাই। আমরা অত্যন্ত ধৈর্য সহকারে আন্দোলনে আছি, থাকবো। কিন্তু সরকারের ফাঁদে পা দিব না।
বিএনপির সিনিয়র এ নেতা বলেন, আমাদের নেত্রী খালেদা জিয়াকে সাজা দেয়া হয়েছে। এ সাজা সরকারের ইচ্ছার প্রতিফলন।
তিনি বলেন, আদালতের রায় এসেছে সম্প্রতি। কিন্তু আগে থেকেই আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে প্রচারণা করেছে বেগম খালেদা জিয়া এতিমের টাকা মেরে খায়েছেন, দুর্নীতি করেছেন। আর রায় এ প্রচারণার প্রতিফলন। উচ্চ আদালতের প্রধান বিচারপতিকে ঘার ধরে তাড়িয়ে দেয়ার পরে দেশে বিচার বিভাগ বলে কিছু থাকে না। স্বাভাবিকভাবেই নিম্ন আদালতগুলো সরকারের ইচ্ছার প্রতিফলন ঘটাচ্ছে। তবে আমাদের রাজপথে থাকতে হবে। রাস্তায় থাকতে হবে।
তিনি আরও বলেন, নেত্রীর মুক্তি আমরা দাবি করি না। আমরা দাবি করি ভোটের মুক্তি, গণতন্ত্রের মুক্তি। আমরা নেত্রীর নির্দেশে আমরা এ আন্দোলনে আছি, থাকবো।
এ সিনিয়র আইনজীবী বলেন, আগামীকাল (রোববার) জামিন আবেদন করা হবে। দেশে যদি আইনের শাসন লেশ মাত্র থাকে তাহলে তিনি (খালেদা জিয়া) মুক্তি পাবেন, জামিন পাবেন। তিনি ফিরে এসে যেকোনো সময় যদি আন্দোলনের ডাক দেন তখন কিন্তু আমাদের রাস্তায় নামতে হবে। সেই রাস্তায় নামাটাই হবে শেষ নামা। যেদিন তিনি রাস্তায় নামার নির্দেশ দিবেন সেই দিনই এ সরকারের শেষ দিন হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।
আয়োজক সংগঠনের সহ-সভাপতি সালাউদ্দিরে সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক আলতাফ হোসেন সরদারের সঞ্চালনায় সভায় এতে আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির শিশুবিষয়ক সম্পাদক আবুল কালাম সিদ্দিক, শিক্ষক নেতা জাকির হোসেন, দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও আন্দোলনের সভাপতি কে এম রকিবুল ইসলাম রিপন, সংগঠনের নেতা হুমায়ুন কবির, মেজবাহ উদ্দিন, গাউসুর রহমান, ফিরোজ মাহমুদ প্রমুখ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ