রবিবার ০৯ আগস্ট ২০২০
Online Edition

বীমার দাবি না পাওয়ায় আস্থাহীনতায় গ্রাহকরা

স্টাফ রিপোর্টার : বীমা খাত নিয়ে এখনও আস্থাহীনতায় গ্রাহকরা। নানা লোভনীয় অফার দেখিয়ে পলিসি খোলা হলেও মেয়াদ পূর্ণ হলে শুরু হয় প্রতারণা। টাকা পেতে বছরের পর বছর জুতা ক্ষয় করতে হয় সাধারণ গ্রাহকদের। অথচ হিসাব খোলার আগে এই গ্রাহকদের পেছনে জুতা ক্ষয় করতে হয় বীমা কোম্পানিগুলোকে। এতে করে বীমায় আস্থা হারাচ্ছে দেশের মানুষ।
বর্তমানে দেশে ব্যবসা করছে ৩২টি জীবন বীমা কোম্পানি। এর মধ্যে ২৮টি কোম্পানির বীমা দাবি উত্থাপন ও পরিশোধ সংক্রান্ত তথ্য পাওয়া গেছে। ডিসেম্বর মাসে এ কোম্পানিগুলোতে প্রক্রিয়াধীন থাকা ৬৭ শতাংশ বীমা দাবি পরিশোধ হয়নি।
শুধু ডিসেম্বর নয়, মাসের পর মাস ধরে জীবন বীমা কোম্পানিগুলোতে দাবি পরিশোধের ক্ষেত্রে এমন চিত্র বিরাজ করছে। নবেম্বর মাসে অপরিশোধিত দাবির হার ছিল ৭১ শতাংশ। আগের মাস অক্টোবরে এ হার ছিল ৭০ শতাংশ এবং সেপ্টেম্বরে ৭৩ শতাংশ। এভাবে প্রতি মাসে প্রায় ৭০ শতাংশ বীমা দাবি অপরিশোধিত থেকে যাচ্ছে জীবন বীমা খাতে।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, বীমা দাবি উত্থাপনের পরও ডিসেম্বর মাস শেষে দাবির অর্থ পাননি এমন গ্রাহকের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে দুই লাখ ৮০ হাজার ৯৯৪ জনে। মাসটিতে বিভিন্ন কোম্পানিতে প্রক্রিয়াধীন বীমা দাবির সংখ্যা ছিল চার লাখ ১৬ হাজর ৮১০টি। এর মধ্যে ডিসেম্বর মাসে বীমা দাবির অর্থ পেতে আবেদন করেন এক লাখ ৬৫ হাজার ৮৪১ জন। বাকি দুই লাখ ৫০ হাজার ৯৬৯ জন গ্রাহক ডিসেম্বর মাসের আগেই আবেদন করেন। এর মধ্যে ডিসেম্বর মাসে দাবির অর্থ পেয়েছেন এক লাখ ৩৫ হাজার ৭৫৫ জন।
তথ্য পর্যালোচনায় দেখা যায়, সব থেকে বেশি বীমা দাবি অপরিশোধিত রয়েছে ডেল্টা লাইফে। দেশের বৃহৎ এ জীবন বীমা কোম্পানিটিতে ডিসেম্বর শেষে অপরিশোধিত বীমা দাবির সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৯৭ হাজার ৬৭২টি। মাসটিতে ডেল্টা লাইফ ১১ হাজার ২৪৫ গ্রাহকের দাবির অর্থ পরিশোধ করেছে। তবে এ সময় কোম্পানিটিতে প্রক্রিয়াধীন দাবির সংখ্যা ছিল এক লাখ আট হাজার ৯২২টি। এর মধ্যে ডিসেম্বর মাসে নতুন উত্থাপিত দাবির সংখ্যা ২৪ হাজার ৭৮৭টি। বাকি ৮৪ হাজার ১৩৫টি দাবি ডিসেম্বর মাসের আগেই উত্থাপিত হয়।
দ্বিতীয় স্থানে থাকা গোল্ডেন লাইফে অপরিশোধিত বীমা দাবির সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪৫ হাজার ১৭টি। মাসটিতে কোম্পানিটি বীমা দাবি পরিশোধ করে এক হাজর ৫৯১ গ্রাহকের। তবে দাবির অর্থ চেয়ে আবেদন করা গ্রাহকের সংখ্যা ছিল ৪৬ হাজার ৬০৮ জন। এর মধ্যে ডিসেম্বর মাসে নতুন আবেদন করেন এক হাজার ৭২৪ জন। বাকি ৪৪ হাজার ৮৮৪ গ্রাহক ডিসেম্বর মাসের আগেই দাবির অর্থ চেয়ে কোম্পানিটিতে আবেদন করেন।
তৃতীয় স্থানে রয়েছে দেশে ব্যবসা করা একমাত্র বিদেশী কোম্পানি মেটলাইফ। কোম্পানিটি ২১ হাজার ৬৮৩ গ্রাহকের দাবির অর্থ পরিশোধ করেনি। ডিসেম্বর মাসে কোম্পানিটি বীমা দাবির অর্থ দিয়েছে তিন হাজার ৬৮৪ জনকে। অথচ দাবির অর্থ পেতে আবেদন করা গ্রাহকের সংখ্যা ছিল ২৫ হাজার ৩৬৭ জন। এর মধ্যে ডিসেম্বর মাসে আবেদন করেন চার হাজার ৩৯৫ জন এবং বাকি ২০ হাজার ৯৭২ গ্রাহক ডিসেম্বর মাসের আগেই বীমা দাবির অর্থ চেয়ে আবেদন করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ