শুক্রবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

টোল আদায়ের নামে অর্থ লুটপাট উলিপুর পৌর শহরে যানজট ও যাত্রী হয়রানি

উলিপুর (কুড়িগ্রাম) সংবাদদাতা: রাজধানী ঢাকা শহরের মত কুড়িগ্রাম জেলার উলিপুরে উপজেলা শহরেও বর্তমান যানজটের তীব্রতা বাড়ছে। এখানে যারজট আর টোল আদায় যেন একসূত্রে গাথা হয়েছে। যানজট নিরসনে উলিপুর পৌরসভার উদ্যোগে যেমন নিয়োগ করা হয়েছে পৌর পুলিশ তেমনি টোল আদায়ে তৈরী করা হয়েছে বিশেষ বাহিনী। টোল আদায়ের প্রভাবে যানজট ক্রমশ: বৃদ্ধি পাচ্ছে, অপরদিকে যানজট নিরসনে নিয়োগ দেয়া পৗর পুলিশের দাপটে যাত্রী সাধারণ বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে পরছে প্রতিনিয়ত । দিনদিন যাত্রী হয়রানী বৃদ্ধিসহ যানজট নিরসনে কোন সুষ্ঠু পরিকল্পনা নেই এখানে। অপরিকল্পিত ভাবে বিশেষ বাহিনী নিয়োগ দেয় মানে টোল আদায় করে বিপুল পরিমান অর্থ লুটপাট ও যাত্রী হয়রানী ছাড়া কি হতে পারে? স্থানী ইউনিয়ন পরিষদ, পৌরসভা এবং জেলা পরিষদের সুষ্ঠু পরিকল্পানা ও সমন্বয়ের মাধ্যমে নিয়মতান্ত্রিক ভাবে রিক্সা, অটোবাইক, ভটভটি, নছিমন,করিমন ও জেএসএ প্রতি বার্ষিক রেজিষ্ট্রেশন ও ধার্যকৃত ফিস আদায়ের মাধ্যমে স্থানীয় সরকার রাজস্ব আদায় বৃদ্ধির মাধ্যমে অর্থের লুটপাট, যানজট প্রতিরোধ এবং যাত্রী হয়রানী বন্ধ করা যেতে পারে। পরিকল্পতি নিয়ম-শৃঙ্খলার মাধ্যমে তা না করে অতিরিক্ত পৌর পুলিশ নিয়োগ ও বিশেষ বাহিনীর মাধ্যমে টোল আদায় যাত্রী হয়রানী এবং রাজস্ব ফাঁকি দেয়ার সামিল। তাছাড়াও মহুর্তে মহুর্তে যান যাতায়াতের রাস্তা পরিবর্তন করে যানজট বৃদ্ধি ও যাত্রী হয়রানীর বারানো হচ্ছে।
জানাগেছে, অবৈধ পরিবহন ভটভটি,নাছিমন-করিমন প্রতি অলিখিত মাসোহারা আদায়ের মাধ্যমে লুটপাট করা হচ্ছে বিপুল অংকের টাকা। উপজেলা শহর উলিপুরে যানজট নিরসনসহ যাত্রী হয়রানী প্রতিরোধ ও বিপুল অংকের রাজস্ব ফঁকির সুষ্ঠু পরিকল্পনা প্রনয়নে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সঠিক দিকনির্দেশনা হবে কি?

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ