বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

আলমডাঙ্গার মাথাভাঙ্গা নদীতে সেতুর পাশ থেকে মাটি খনন : বর্ষায় ধসে পড়ার আশঙ্কা

চুয়াডাঙ্গা সংবাদদাতা: চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলার হাঁটুভাঙ্গার মাথাভাঙ্গা নদীতে সেতুর পাশ থেকে অবৈধভাবে মাটি খননের অভিযোগ উঠেছে।
এতে বর্ষার সময় সেতুর পাশ থেকে মাটি ধসে যেতে পারে। ফলে সড়কসহ ও সেতু ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা জেলার গৌরবময় নদী একমাত্র মাথাভাঙ্গা। এ নদীর উপর এলাকার মানুষের দুর্ভোগ লাঘবের জন্য ২০০৮ সালে হাটুভাঙ্গা নামকস্থানে একটি সেতু নির্মাণ করা হয়। প্রতিদিনে ওই সেতুর উপর দিয়ে চুয়াডাঙ্গা জেলার আলমডাঙ্গা উপজেলার হাটবোয়ালিয়া বাজার থেকে আলমসাধু, ইজিবাইকসহ বিভিন্ন প্রকার যানবহন চলাচল করে।
গত ২ সপ্তাহ ধরে হাঁটুভাঙ্গা গ্রামের ফজলুল হকের ছেলে সাজেত আলী সেতুর পাশে খনন করে মাটি উত্তোলন করছে। বিষয়টিতে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছে এলাকার সাধারন মানুষ, তাদের অভিযোগ যেভাবে সেতুর পাশ থেকে খনন করে মাটি উত্তোলন করা হচ্ছে এবার বর্ষা এলে পানি যখন নদীতে নামবে তখন সেতুটি ধসে যাওয়ার সম্ভাবনা বেশি। আমতৈল গ্রামের সুকলাল হোসেনের ছেলে বিল্লাল, একই গ্রামের মজিদ মিয়ার ছেলে মামুন জানান, এভাবে নদী থেকে মাটি কেটে ওরা নিজেরা ফায়দা হাসিল করছে কিন্তু বর্ষাকালে যখন নদীতে বর্ষার পানি নামবে তখন এ নিশ্চিত ব্রিজ ধসে পড়বে। বিষয়টির প্রতি সংশ্লিষ্ট বিভাগের দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ প্রয়োজন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ