শুক্রবার ০৭ আগস্ট ২০২০
Online Edition

পাকিস্তানে প্রশিক্ষণ নিচ্ছে ১০ হাজার সৌদী সৈন্য

২১ ফেব্রুয়ারি : ইন্টারনেট : পাকিস্তান দশ হাজার সৌদী সৈন্যকে প্রশিক্ষণ দিচ্ছে। পাকিস্তানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী খুররম দস্তগির সৌদি আরবে অতিরিক্ত আরো এক হাজার সৈন্য প্রেরণের সরকারের সিদ্ধান্ত বিষয়ে সোমবার সিনেটে দেয়া বিবৃতিতে এ কথা জানান। তবে পাকিস্তানের মাটিতে এত বিপুল সংখ্যক সৈন্যের উপস্থিতি এবং তাদের কি ধরনের প্রশিক্ষণ দেয়া হচ্ছে সে বিষয়ে বিশদ বলেন নি। তার এ বিবৃতির মধ্য দিয়ে রিয়াদ ও ইসলামাবাদের মধ্যে ক্রমবর্ধমান নিরাপত্তা সহযোগিতার খবরের সত্যতারই সমর্থন মিলেছে।অনেকেই দু’দেশের মধ্যে ক্রমবর্ধমান প্রতিরক্ষা সহযোগিতাকে ক্ষমতাসীন আল-সউদ পরিবারের মধ্যে বিরোধ এবং সাম্প্রতিক দুর্নীতি দমন অভিযানে ক্ষমতাসীন পরিবারের সদস্যদের আটকের ঘটনার পর সউদী আরবের অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তার সাথে সম্পর্কিত করেছেন।কিছু পার্লামেন্টারিয়ান পাকিস্তান থেকে প্রেরিত অতিরিক্ত সৈন্যদের ইয়েমেনের ইরানপন্থী হুতি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে ব্যবহার করা হতে পারে বলে এ সিদ্ধান্ত সম্পর্কে প্রশ্ন তোলার প্রেক্ষিতে প্রতিরক্ষা মন্ত্রী এ বিবৃতি দেন। ১৯৮২ সালে দু’পক্ষের মধ্যে স্বাক্ষরিত নিরাপত্তা প্রটোকল অনুযায়ী প্রায় ১,৬০০ পাকিস্তানি সেনা অফিসার ও সৈন্য সউদী আরবে মোতায়েন রয়েছে।স্থানীয় মিডিয়া জানায়, কাতারে বর্তমানে ৬৪৭ জন পাকিস্তানি সৈন্য মোতায়েন আছে। অন্যদিকে পাকিস্তান বিমান বাহিনী ১০ জন ইরানি পাইলটকে প্রশিক্ষণ দিচ্ছে। প্রতিরক্ষা মন্ত্রী বলেন, পাকিস্তানের বাইরে সউদী আরব বা ইয়েমেনে পাকিস্তানি সৈন্য মোতায়েন করা হোক না কেন, আমি আপনাদের আশ্বস্ত করতে চাই যে এ রকম কিছু ঘটবে না। পার্লামেন্টের গাইড লাইন অনুযায়ী মধ্যপ্রাচ্যে কোনো সংঘাতে পাকিস্তান নিরপেক্ষ থাকবে।তিনি ২০১৫ সালের পার্লামেন্টারি প্রস্তাবের কথা উল্লেখ করেন যাতে বলা হয়েছে যে পাকিস্তান মধ্যপ্রাচ্যে , বিশেষ করে ইয়েমেনে কোনো যুদ্ধে জড়াবে না।তার বিবৃতি বামপন্থী পাকিস্তান পিপলস পার্টির (পিপিপি) বেশ কিছু সদস্যের সাথে উত্তপ্ত বিতর্ক সৃষ্টি করেছে। সিনেট চেয়ারম্যান রাজা রব্বানি প্রতিরক্ষা মন্ত্রীর ব্যাখ্যাকে যথেষ্ট নয় বলে আখ্যায়িত করেন। তারা সেনা প্রেরণ ও মোতায়েনের ব্যাপারে বিশদ তথ্য দাবি করেন। সাবেক অভ্যন্তরীণ মন্ত্রী ও শীর্ষ পিপিপি নেতা আয়তেজাজ আহসানের এক প্রশ্নের জবাবে দস্তগির বলেন, এ সব সৈন্য সউদী আরবে কোথায় মোতায়েন করা হবে আমি বলতে পারব না। তবে আমি আপনাদের আশস্ত করতে পারি যে তারা সউদী আরবের মধ্যেই থাকবে। আয়তেজাজ বলেন, পাকিস্তানি সৈন্যদের হয়ত ইয়েমেনে মোতায়েন করা হবে।পূর্বে এক বিবৃতিতে পাকিস্তানের সেনাবাহিনী জোর দিয়ে বলে, সউদী আরবে প্রেরিত নতুন সৈন্য বা আগে প্রেরিতদের সউদী আরবের বাইরে পাঠানো হবে না। এতে বলা হয়, পাক-সউদী চলমান দ্পিাক্ষিক নিরাপত্তা সহযোগিতার চলমানতায় পাকিস্তান সেনাবাহিনীর একটি কন্টিনজেন্টকে প্রশিক্ষণ ও পরামর্শ মিশনে সউদী আরবে পাঠানো হচ্ছে। তারা বা আগে মোতায়েন পাকিস্তানি সৈন্যরা সউদী আরবের বাইরে যাবে না জিসিসি/আঞ্চলিক দেশগুলোর সাথে পাক সেনাবাহিনীর দ্বিপাক্ষিক নিরাপত্তা সহযোগিতা সম্পর্ক রয়েছে। সউদী আরবে ১৯ লাখ পাকিস্তানি কর্মরত রয়েছে। তারা দেশে রেমিট্যান্স প্রেরণের শীর্ষে যার পরিমাণ বার্ষিক সাড়ে ৪শ’ কোটি ডলার। তাছাড়া সউদী আরব পাকিস্তানের বৃহত্তম আঞ্চলিক বাণিজ্য অংশীদার ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ