মঙ্গলবার ১৯ জানুয়ারি ২০২১
Online Edition

দিনাজপুরের মধ্যপাড়া কঠিন শিলা খনিতে উৎপাদন ৪ হাজার মেট্রিক টন ছাড়িয়ে গেছে

দিনাজপুরের মধ্যপাড়া কঠিন শিলা খনিতে তিন শিফটে পাথর উত্তোলন ৪ হাজার মেট্রিক টন ছাড়িয়ে এখন প্রায় ৪ হাজার ২শ’ টনে দাঁড়িয়েছে

মোঃ আফজাল হোসেন, ফুলবাড়ী, (দিনাজপুর) থেকে: বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চলের দিনাজপুরের মধ্যপাড়া কঠিন শিলা খনিতে তিন শিফটে পাথর উত্তোলন ৪ হাজার মেট্রিক টন ছাড়িয়ে এখন প্রায় ৪ হাজার ২ শত টনে দাড়িয়েছে। পাথর খনির ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান জার্মানীয়া-ট্রেষ্ট কনসোর্টিয়াম (জিটিসি) দ্বারা খনির ভু-গর্ভে নির্মিত নতুন স্টোপ থেকে ৩ শিফটে পাথর উত্তোলন দিন দিন বেড়েই চলছে। সেই সাথে পাথর বিক্রিও বেড়েছে। খনিকে নিয়ে আশার আলো দেখছেন খনি কর্তৃপক্ষ এবং খনি এলাকাবাসীরা।
পাথর খনি সুত্রে জানা গেছে, গত ১১ ফেব্রুয়ারী (রোববার)  তিন শিফটে পাথর উত্তোলন হয়েছে প্রায় ৪ হাজার ২ শত মেট্রিক টন।
সুত্র আরো জানায়, মধ্যপাড়া খনির ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান জিটিসি অতি দ্রুততার সাথে খনির ভু-গর্ভে নতুন স্টোপ নির্মান ও খনি উন্নয়ন করে সফলতার সাথে তিন শিফটে পাথর উত্তোলন করছে। দিন দিন তা বেড়েই চলেছে এবং এক্ষেত্রে সবার সহযোগিতায় জিটিসি পাথর খনিটিকে সরকারের লাভজনক প্রতিষ্ঠানে পরিনত করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।
মধ্যপাড়া কঠিন শিলা খনির ঠিকাদারী প্রতিষ্টান জার্মানীয়া-ট্রেষ্ট কনসোর্টিয়াম (জিটিসি) এর অধীনে বিদেশী দক্ষ খনি বিশেষজ্ঞ দল, খনি শ্রমিকরা এবং দেশী প্রকৌশলীরা ৩ শিফটে খনি উন্নয়ন ও পাথর উত্তোলনে নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। তিন শিফটে প্রতিদিন পাথর উত্তোলন বাড়ছে যা বর্তমানে প্রায় ৪ হাজার ২ শত টনে দাড়িয়েছে। উৎপাদন বৃদ্ধির সাথে পাথর বিক্রিও বেড়েছে। মধ্যপাড়া কঠিন শিলা প্রকল্পটি পূর্বের ন্যায় এখন আধুনিক যন্ত্রপাতি বসানোর ফলে খনিটি এখন লাভজনক হওয়ায় সরকারের রাজস্ব বৃদ্ধি পাবে। বেসরকারি ঠিাকাদারী প্রতিষ্ঠান জার্মানিয়া ট্রেস্ট কনসোর্টিয়াম (জিটিসি) দায়িত্বভার নেওয়ার পর তারা খনিটির সকল কার্যক্রম পরিচালনা করছে। যাতে করে ভবিষ্যতে খনিটি কোন ভাবে বন্ধ হয়ে না যায়। বর্তমান এই এলাকার মানুষ খনিটিতে কর্মক্ষেত্র পেয়ে তারা এবং তাদের পরিবার জীবন জীবিকার পথ ফিরে পেয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ