ঢাকা, বৃহস্পতিবার 16 July 2020, ১ শ্রাবণ ১৪২৭, ২৪ জিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

ইন্টারনেটের গতি কমানোর সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: চলমান এসএসসি প্রশ্নপত্র ফাঁস বন্ধে ইন্টারনেটের গতি কমানোর যে সিদ্ধান্ত সরকার নিয়েছিল তা প্রত্যাহার করে নিয়েছে নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থা বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)। 

আজ সোমবার সকাল আটটা পাঁচ মিনিটে বাংলাদেশে  ইন্টারনেট সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলোর সংগঠন আইএসপিএবিএ-এর কাছে বার্তা পাঠিয়ে ইন্টারনেটের গতি কমানোর সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করে নেয়ার কথা জানানো হয়।আইএসপিএবিএ’র সভাপতি আমিনুল হাকিম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।তিনি জানান, ইন্টারনেট ধীর গতি রাখার যে সিদ্ধান্ত হয়েছিল সেটা প্রত্যাহার করা হয়েছে। এ পরিস্থিতিতে ইন্টারনেটের স্বাভাবিক গতি ফিরে এসেছে। ইন্টারন্যাশনাল ইন্টারনেট গেটওয়ে (আইআইজি) থেকে ইন্টারনেট ব্যান্ডউইথ সরবরাহ স্বাভাবিক করা হয়েছে।

এর আগে দেশজুড়ে চলমান এসএসসি পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁসের পর ফেসবুকসহ ইন্টারনেটের গতি কমিয়ে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় শিক্ষা মন্ত্রণালয়। সরকারের উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধিদের সঙ্গে পরামর্শ শেষে এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করতে বলা হয় বিটিআরসিকে। তবে বিষয়টি ভালো চোখে দেখেননি ডাক, টেলিযোগাযেোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

এ প্রসঙ্গে মোস্তাফা জব্বার বলেন, ‘পরীক্ষায় প্রশ্ন ফাঁস হচ্ছে। এটা ঠেকানোর দায়িত্ব শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের। সেজন্য ইন্টারনেট বন্ধ করে দেয়া কিংবা এর গতি কমানোর কোনো মানেই নেই। আমি ফেসবুক কিংবা ইন্টারনেট বন্ধের পক্ষে কোনো দিনেই ছিলাম না। কিন্তু যেহেতু এটা সরকারের তরফ থেকে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে তাই বিটিআরসিকে তাদের নির্দেশনা অনুযায়ী ইন্টারনেটের গতি কমানো সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল। যদিও সরকার এখন সেই সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে। এটা ভালো সিদ্ধান্ত।’

মোস্তাফা জব্বার বলেন, ‘আমি শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে বলবো-আপনারা প্রশ্ন ফাঁসের সঙ্গে জড়িত আসল অপরাধীদের খুঁজে বের করুন। এজন্য ইন্টারনেট বন্ধ করে সাধারণ মানুষদের ভোগান্তিতে ফেলার কোনো মানে নেই।’

প্রশ্নপত্র ফাঁস ঠেকাতে এসএসসি পরীক্ষায় সকাল ৮টা থেকে সাড়ে ১০টা পর্যন্ত আড়াই ঘণ্টা ইন্টারনেটের গতি কমিয়ে রাখার সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। এ জন্য বিটিআরসির পক্ষ থেকে সব আইএসপি ও মোবাইল অপারেটরদের নির্দেশনা দেয়া হয়। এর অংশ হিসেবে রোববার রাত ১০ থেকে সাড়ে দশটা পর্যন্ত আধা ঘণ্টা পরীক্ষামূলকভাবে দেশের সব ইন্টারনেট প্রোভাইডারের ব্যান্ডউইথ প্রতি সেকেন্ড ২৫ কিলোবিটের মধ্যে সীমিত রাখা হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ