বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

দুদকের শুভেচ্ছা দূত সাকিব আল হাসান

স্টাফ রিপোর্টার : দুর্নীতির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে দুর্নীতি দমন কমিশনের শুভেচ্ছা দূত হলেন ক্রিকেট অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। সবাই মিলে দেশকে দুর্নীতিমুক্ত করার প্রত্যাশার কথা জানিয়ে তিনি বলেছেন, তার অনুপ্রেরণায় যদি দেশে একটি দুর্নীতিও কম হয়, তা হবে তার জন্য ‘বড় পাওয়া’। গতকাল রোববার ঢাকার সেগুনবাগিচায় কমিশন কার্যালয়ে সাকিব ও দুদকের মহাপরিচালক (প্রতিরোধ) মো. জাফর ইকবাল চুক্তি সইয়ের আনুষ্ঠানিকতা সারেন।
রসিকতা করে একে ‘তথাকথিত’ চুক্তি হিসেবে বর্ণনা করে দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেন, “আমাদের মনের চুক্তি আগেই হয়েছে, আর্কাইভের জন্য কাগজের চুক্তি স্বাক্ষরিত হল।”  “যুব শক্তি বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় শক্তি। রাজনৈতিক শক্তি, সামাজিক শক্তিসহ সকল শক্তির মূল উৎস যুব সমাজ। এই যুব সমাজের আইকন হচ্ছেন সাকিব আল হাসান। আমরা অত্যন্ত আনন্দিত, গর্বিত ও কৃতজ্ঞ তিনি আমাদের মাঝে এসেছেন।” ভবিষ্যতে দুদকের দুর্নীতিবিরোধী বিভিন্ন অনুষ্ঠানে ‘সময় পেলে’ সাকিবকে অংশ নিতে অনুরোধ করেন কমিশনের চেয়ারম্যান।
এ সময় সাকিব বলেন, “দুদকের মত এমন একটি প্রতিষ্ঠানের সাথে যুক্ত হতে পেরে খুবই গর্ব বোধ করছি। আমার দ্বারা যদি একজন মানুষেরও উপকার হয়, একটি দুর্নীতিও যদি কম হয়, সেটাও আমার বড় পাওয়া ।”
বাংলাদেশের এই তারকা ক্রিকেটার বলেন, “আমরা সবাই মিলে যদি কোনো ভাল কাজ করতে পারি এবং দেশের উন্নয়নে কাজে লাগতে পারি, সেটাই আমাদের আসল লক্ষ্য। সেই লক্ষ্য থেকে এখানে আসা। আশা করি আমাদের এই পথচলা অনেক দিনের হবে।”
দুদক কমিশনার এএফএম আমিনুল ইসলাম, সচিব মো. শামসুল আরেফিনসহ কমিশনের কর্মকর্তারা চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ