শনিবার ০৮ আগস্ট ২০২০
Online Edition

নীলফামারীতে প্রকৌশলী স্বামীর বিরুদ্ধে স্ত্রীর যৌতুক মামলা

নীলফামারী সংবাদদাতা: নীলফামারীর  কিশোরগঞ্জ উপজেলায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রকৌশলী স্বামীর বিরুদ্ধে  ৫ লাখ টাকা যৌতুক দাবির অভিযোগে আদালতে মামলা করেছে স্ত্রী।
মামলার সূত্র মতে , কিশোরগঞ্জ উপজেলার নিতাই ইউনিয়নের আদিয়ার পাড়া গ্রামের তছির উদ্দিনের ছেলে নীলফামারী পানি উন্নয়ন বোর্ডের  এ্যাসিটেন্ট ইঞ্জিনিয়ার (এসও) আব্দুস শহীদ বিয়ে করেন জয়পুরহাট জেলার সদর ভাপসা ইউনিয়নের তুপাড়া গ্রামের আবুল মন্ডলের মেয়ে খাদিজা বেগমকে। বিয়ের কিছুদিন পর আব্দুস শহীদ স্ত্রীকে তার বাবার কাছে ৫ লাখ টাকা যৌতুক নিয়ে আসতে বলে। কিন্তু খাদিজার বাবা এত টাকা দিতে না পাড়ায় তিনি স্ত্রীকে নিজ বাড়ীতে নিয়ে আসেননি।
খাদিজা বেগম বলেন বিয়ে করে বাবার বাড়ীতে আর কত দিন থাকবো। তাই আমি গত ২১ জানুরারী সন্ধ্যায় স্বামীর বাড়ী নীলফামারীতে চলে আসি। স্বামীর বাড়ীতে প্রবেশের সাথে সাথে শ^শুর ,শাশুড়ী , দেবর ও স্বামী আব্দুস  শহীদ আমাকে টানা হ্যাচড়া করে বাড়ী থেকে বের করে দেয়ার চেষ্টা করে। আমি বাড়ী থেকে বের হতে না চাইলে আব্দুস শহীদ আমার চুলের মুঠি ধরে কাঠের গুড়ি দিয়ে বেধড়ক মারপিট করে। এসময় আমি জ্ঞান হারিয়ে ফেললে স্থানীয় সাবেক বিডিআর সামছুল হক আমাকে কিশোরগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভতি করে।
এ ঘটনায় স্ত্রী খাদিজা বেগম  স্বামী আব্দুস শহীদকে প্রধান আসামী করে ৪ জনের নামে যৌতুক  আইনে জয়পুরহাট আদালতে একটি মামলা করে। প্রকৌশলী আব্দুস শহীদের সাথে মোবাইল ফোনে যোগযোগ করা হলে তিনি যৌতুক দাবির কথা অস্বীকার করে বলেন ওই মেয়েকে বিয়ে করে আমি ভুল করেছি, তার চারিত্রিক বিষয়ে সমস্যা আছে। এ ব্যাপারে নীলফামারী পানি উন্ন্য়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু মুসার সাথে যোগযোগ করা হলে তিনি বলেন  আব্দুস শহীদের বিরুদ্ধে তার স্ত্রীর মামলা দায়েরের  বিষয়টি এখনো  শুনিনি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ