সোমবার ০৩ আগস্ট ২০২০
Online Edition

পার্লামেন্ট প্রধানকে দক্ষিণ কোরিয়ায় পাঠাচ্ছে উত্তর কোরিয়া

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: বৈরিতার অবসান ও সম্প্রীতি জোরদার করার লক্ষ্যে আসন্ন শীতকালীন অলিম্পিকে উত্তর কোরিয়ার পার্লামেন্ট প্রধান ও সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় কর্মকর্তা কিম ইয়ং ন্যাম দক্ষিণ কোরিয়া সফরে যাচ্ছেন। এই উদ্যোগকে দুই দেশের মধ্যে বিরাজমান চাপা উত্তেজনা নিরসন, আন্তঃসম্পর্ক জোরদার ও উদারমনোভাব হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে।

উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় পর্যায়ের সবোচ্চ কর্মকর্তা কিম ইয়ং ন্যাম ২২ সদস্যের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্বে দিতে আগামী শুক্রবার আসছেন বলে জানিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়ার  একীভূতকরণ মন্ত্রণালয়। খবর বিবিসির।

উত্তর কোরিয়ার অলিম্পিকে অংশগ্রহণকে দুই দেশের কূটনৈতিক পর্যায়ে ব্যাপক সাফল্য বলে মনে করা হচ্ছে।এছাড়া অলিম্পিকের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে দুই কোরিয়ার ক্রীড়াবিদরা একই পতাকা নিয়ে কুচকাওয়াজে যাত্রা করবেন।

দক্ষিণ কোরিয়ার একীভূতকরণ মন্ত্রণালয় বলছে, পিয়ংইয়ং ম্যাংইয়ংবং-৯২ নামের একটি নৌতরীতে করে প্রতিনিধিদলকে পাঠাবে। এ নৌতরীটি কেবল রাশিয়া ও উত্তর কোরিয়ার মধ্যে যোগাযোগ ও সমঝোতার মাধ্যম হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে।

বিগত ২০১০ সাল থেকে উত্তর কোরিয়ার সবধরনের জাহাজ দক্ষিণ কোরিয়ার বন্দরে নিষিদ্ধ রয়েছে। দক্ষিণ কোরিয়ার একীভূত মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বাইক তাইয়্যূন গণমাধ্যমকে জানান, অলিম্পিকের আয়োজনকে সাফল্যমণ্ডিত করতে আমরা একটি ব্যতিক্রম পন্থা হিসেবে এ পথকে বেছে নিয়েছি।

পারমাণবিক অস্ত্র ও মিশাইল প্রজেক্টের জন্য উত্তর কোরিয়ার ওপর ক্রমান্বয়ে আন্তর্জাতিক চাপ ও অবরোধ বেড়েই চলছে। উত্তর কোরিয়া একটি নৌকায় করে একটি প্রতিনিধি দল পাঠাতে যাচ্ছে যা দ্বিপাক্ষিয় নিষেধাজ্ঞায় এক ধরনের ছাড় হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে।

এদিকে দক্ষিণের প্রেসিডেন্টের বাসভবন ব্লু-হাউজের এক কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বিবিসিকে জানান, দক্ষিণ কোরিয়া একে দুই দেশের মধ্যে আন্তঃসম্পর্ক জোরদার ও  উদার মনোভাব হিসেবে বিবেচনা করছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ