শনিবার ১৫ আগস্ট ২০২০
Online Edition

আবাহনীকে হারিয়ে সেমিফাইনালে আরামবাগ

স্পোর্টস রিপোর্টার : সদ্য সমাপ্ত বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা জয়ী ঢাকা আবাহনী লিমিটেডের ত্রি-মুকুট জয়ের স্বপ্ন গুঁড়িয়ে দিয়ে স্বাধীনতা কাপের সেমি-ফাইনালে উঠেছে আরামবাগ ক্রীড়া সংঘ। গতকাল  বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে আসরের তৃতীয় কোয়ার্টার-ফাইনালে প্রিমিয়ার লিগ ও ফেডারেশন কাপের চ্যাম্পিয়নদের ৩-০ গোলে হারায় আরামবাগ। ম্যাচের শেষ ২৫ মিনিটে তিনগোল করে আরামবাগ।  গোলশূন্য প্রথমার্ধে বলের নিয়ন্ত্রণে এগিয়ে থাকলেও পাঁচ ডিফেন্ডার নিয়ে নামা আরামবাগের রক্ষণ ভাঙতে পারেনি আবাহনী। 

‘সি’ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন হয়ে শেষ আটে ওঠা দলটি শেষ দিকে মরিয়া আক্রমণ করলেও গোলের দেখা পায়নি। ৪৩তম মিনিটে ডান দিক থেকে আতিকুর রহমান ফাহাদের বাড়ানো ক্রসে মাথা ছোঁয়ানোর কাজটুকু করতে পারেননি মামুন মিয়া। এরপর ডি-বক্সের ভেতর থেকে ক্রসবারের ওপর দিয়ে শট নিয়ে আবাহনীর হতাশা বাড়ান মিডফিল্ডার সোহেল রানা। প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে সতীর্থের কর্নারের পর ডান দিকের ডি বক্সের ভেতর থেকে পোস্টে শট না নিয়ে প্রতিপক্ষের খেলোয়াড়ের গায়ে মারেন ফরোয়ার্ড রুবেল মিয়া। একটু পর রুবেলের হেড থেকে ফাঁকায় বল পেয়েও ক্রসবারের ওপর দিয়ে উড়িয়ে মারেন ফরোয়ার্ড সাদউদ্দিন। গোলশুন্য প্রথমার্ধের পর দ্বিতীয়ার্ধের নবম মিনিটে গোলের আরেকটি ভালো সুযোগ নষ্ট হয় আবাহনীর। সতীর্থের লম্বা করে বাড়ানো বল ডি-বক্সের ভেতরে নিয়ন্ত্রণে নিলেও ক্রসবারের ওপর দিয়ে উড়িয়ে মারেন রুবেল। প্রতিআক্রমণ নির্ভর খেলা আরামবাগ ৬৫তম মিনিটের সুযোগটি কাজে লাগিয়ে এগিয়ে যায়। বাঁ দিক দিয়ে আক্রমণে ওঠা ডিফেন্ডার আরিফের বাড়ানো বলে  ফরোয়ার্ড আবু সুফিয়ান সুফিলের প্লেসিং শট চোখের পলকে জালে জড়ায় (১-০)। ৮০তম মিনিটে আজম খানের দৃঢ়তায় ম্যাচে ফেরা হয়নি আবাহনীর। সোহেলের বাড়ানো বলে নাবীব নেওয়াজ জীবনের হেড শেষ মুহূর্তে ফিস্ট করে ফেরান গোলরক্ষক। দুই মিনিট পর প্রতিআক্রমণ থেকে ব্যবধান দ্বিগুণ করে নিয়ে সেমি-ফাইনাল খেলা অনেকটাই নিশ্চিত করে নেয় আরামবাগ। মাঝমাঠ থেকে  সতীর্থের বাড়ানো বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ডি বক্সের ভেতর ঢুকে আগুয়ান গোলরক্ষকের মাথার ওপর টো  দিয়ে নিখুঁত চিপে লক্ষ্যভেদ করেন ফরোয়ার্ড মোহাম্মদ জুয়েল (২-০)। ৮৫তম মিনিটে ডি বক্সের বাইরে থেকে শাহরিয়ার বাপ্পীর শট গোলরক্ষক শহিদুল আলমের মাথার ওপর দিয়ে জালে জড়ালে স্বাধীনতা কাপের গতবারের রানার্সআপ আবাহনীর ম্যাচে ফেরার আশা শেষ হয়ে যায়।

আগামী সোমবার প্রথম সেমি-ফাইনালে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের মুখোমুখি হবে আরামবাগ। ম্যাচ শেষে আরামবাগের কোচ মারুফুল হক জানান, আমরা প্রমান করেছি আবাহনীকে হারানো সম্ভব। এখনই ফাইনালের কথা ভাবতে রাজী নন তিনি, তার মাথায় এখন চিন্তা সেমির হার্ডেল পার হওয়ার। অপরদিকে আবাহনীর ম্যানেজার সত্যজিত দাস রুপু জানান, তার খেলোয়াড়রা প্রথমার্ধে লিড নিতে পারলে ম্যাচের ফলাফল ভিন্ন হতে পারত। উল্টো গোল খেয়ে চাপ বেড়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ