মঙ্গলবার ০৪ আগস্ট ২০২০
Online Edition

পারিবারিক কলহের জের ধরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গৃহবধূ  খুন ॥ স্বামী গ্রেফতার

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সংবাদদাতা : ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পারিবারিক কলহের জের ধরে দুই সন্তানের জননী ঝর্ণা বেগম-(৩৫) নামে এক গৃহবধূকে মারধোর করে হত্যা করা হয়েছে।  গত বুধবার রাতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর এলাকার পশ্চিম মেড্ডায় এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ নিহতের স্বামী বিল্লাল মিয়াকে গ্রেফতার করেছে।

নিহত ঝর্ণা বেগম আশুগঞ্জ উপজেলার তালশহর ইউনিয়নের নাওঘাট গ্রামের মৃত  আব্দুর রাজ্জাকের মেয়ে। তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়া পপুলার লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানিতে চাকুরী করতেন।

নিহতের পরিবার ও পুলিশ জানায়,  প্রায় ২০ বছর আগে পারিবারিক ভাবে সদর উপজেলার সাদেকপুর ইউনিয়নের রাজাখাঁ গ্রামের স্থায়ী বাসিন্দা ও বর্তমানে পৌর এলাকার পশ্চিম মেড্ডায় বসবাসরত মরহুম আবদুল খালেকের ছেলে বিল্লালের সাথে ঝর্ণার বিয়ে হয়। বিয়ের পর বিল্লাল বিদেশে চলে যায়। প্রতিবছর একবার দেশে আসতো। দাম্পত্য জীবনে তারা এক কন্যা ও এক পুত্র সন্তানের জনক-জননী।

নিহত ঝর্ণার ভাই হেলাল উদ্দিন  অভিযোগ করে বলেন, দুই বছর আগে বিদেশ থেকে দেশে ফিরে বিল্লাল আরেকটি বিয়ে করে। এরপর থেকেই ঝর্ণার সাথে তার পারিবারিক কলহ দেখা দেয়। দুই সন্তানকে নিয়ে কোন রকমে সংসার চালাতো ঝর্ণা। গত বুধবার রাতে পারিবারিক কলহের জের ধরে ঝর্ণাকে বেদম মারধোর করে বিল্লাল। এক পর্যায়ে ঝর্ণা মারা যায়। গতকাল বৃহস্পতিবার ভোরে ঝর্ণার লাশ নিয়ে শহরের জেলরোডের ডাচ বাংলা ডায়াগনস্টিক সেন্টারে নিয়ে আসে বিল্লাল। খবর পেয়ে পুলিশ ওই ক্লিনিক থেকে বিল্লালকে গ্রেফতার করে।এ ব্যাপারে সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) জিয়াউল হক বিষয়টি নিশ্চিত করে  বলেন, নিহতের শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এ ঘটনায় নিহত ঝর্ণার ভাই  হেলাল বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ নিহতের স্বামী বিল্লাল মিয়াকে গ্রেফতার করেছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ