শুক্রবার ১৪ আগস্ট ২০২০
Online Edition

ডিভি প্রত্যাশীদের জন্য দুঃসংবাদ

১ ফেব্রুয়ারি, দ্য আটলান্টিক: বাংলাদেশসহ বিশ্বের উন্নয়নশীল দেশগুলো থেকে যুক্তরাষ্ট্রে অভিবাসনের একটি বড় উপায় হিসেবে ডিভি লটারিকে বিবেচনা করা হয়ে থাকে। বাংলাদেশী ডিভি প্রত্যাশীদের জন্য দুঃসংবাদ নিয়ে এলো মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের স্টেট্ অব দ্য ইউনিয়ন ভাষণ।

ট্রাম্প মঙ্গলবার রাতে তার প্রথম ‘স্টেট অব দ্য ইউনিয়ন অ্যাড্রেসে’ যুক্তরাষ্ট্রের অভিবাসন নীতিসহ নানা ক্ষেত্রে পলিসিগত পরিবর্তন আনার আহবান জানিয়েছেন। এসবের মধ্যে সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য দিক হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের অভিবাসন নীতি, যা তিনি ঢেলে সাজাতে চান। এক্ষেত্রে তিনি তার প্রশাসনের তরফে নানামুখি পদক্ষেপ ও অঙ্গীকারের কথা জানিয়েছেন।

ট্রাম্প বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে অভিবাসনের জন্য এতোদিন ধরে প্রচলিত ‘লটারি’ পদ্ধতিটি আর রাখা যাবে না। বরং অভিবাসন হবে মেধা ও যোগ্যতার ভিত্তিতে।

ট্রাম্পের ভাষায়, “সময় এসেছে একটি মেধাভিত্তিক অভিবাসন পদ্ধতির দিকে ধাবিত হবার। এমন এক পদ্ধতি যা অভিবাসী হিসেবে তাদেরকেই অন্তর্ভুক্ত করবে যারা দক্ষ ও মেধাবী, যারা কাজ করতে চায়, যারা আমাদের সমাজে অবদান রাখবে এবং যারা আমাদের দেশকে ভালোবাসবে এবং সম্মানের চোখে দেখবে।

মার্কিন অভিবাসনের জন্য তিনি ৪টি ধাপের (ফোর পিলারস) সংস্কার-নীতির প্রস্তাব করেন। এই চার ধাপের তিনটি হলো মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণ, বিরামহীন অভিবাসনের অবসান ঘটানো এবং ডিভি লটারি নামে পরিচিত ডাইভারসিটি ভিসা উঠিয়ে দেওয়া। মেধাভিত্তিক অভিবাসন পদ্ধতি প্রবর্তনে একটি আইন প্রণয়নের জন্য তিনি কংগ্রেসের প্রতি আহবান জানান। 

বিশ্লেষকরা বলছেন, ট্রাম্পের প্রস্তাবিত এই নতুন অভিবাসন পদ্ধতি বাস্তবায়িত হলে তৃতীয় বিশ্বের বিভিন্ন দেশের অভিবাসন প্রত্যাশী লক্ষ লক্ষ মানুষের স্বপ্নভঙ্গ হবে। তবে লক্ষ লক্ষ ভারতীয় মেধাবী পেশাজীবীর জন্য খুলে যাবে সুযোগের সুবর্ণ দুয়ার। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ