সোমবার ২৬ অক্টোবর ২০২০
Online Edition

১০ লাখ টাকা লুট ছিনতাইকারীর হাতে বিকাশ এজেন্ট খুন 

 

স্টাফ রিপোর্টার : রাজধানী ঢাকার উত্তরা ও ডেমরায় পৃথকভাবে ছিনতাইকারীর কবলে পড়েছেন বিকাশের দু‘জন এজেন্ট । ছিনতাইকারীদের হামলায় উত্তরায় খুন হয়েছেন এক বিকাশ এজেন্ট । তারা তাকে ছুরিকাঘাত করে খুন করে টাকার ব্যাগ নিয়ে  গেছে ।

অপরদিকে , ডেমরার গলাকাটা ব্রিজের ঢালে বিকাশের বিক্রয় প্রতিনিধিকে কুপিয়ে টাকার ব্যাগ নিয়ে গেছে ছিনতাইকারীরা। 

উত্তরা পশ্চিম থানার উপ পরিদর্শক কাওসার আহমেদ জানান, বেলা সাড়ে ১০টার দিকে ৫ নম্বর সেক্টরের ১/এ সড়কে এ ঘটনা ঘটে। নিহত আলামিন (২৪) ওই এলাকার এক বিকাশ এজেন্টের কর্মচারী। তার ব্যাগে ওই সময় পাঁচ লাখ টাকার মত ছিল বলে পুলিশ প্রাথমিকভাবে তথ্য পেয়েছে।

এসআই কাওসার বলেন, ছিনতাইকারীরা আলামিনকে ছুরিকাঘাত করে তার সঙ্গে থাকা ব্যাগ নিয়ে পালিয়ে যায়। রক্তাক্ত আলামিনকে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

উত্তরার পশ্চিম থানার ওসি আলী হোসেন বলেন, ‘উত্তরায় বিকাশের নির্ভর নামে একটি ডিস্ট্রিবিউটর প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করেতেন আলামিন। সকাল সাড়ে ১০ টায় তিনি উত্তরার ৫ নম্বর সেক্টরের ৪ সম্বর সড়ক দিয়ে যাচ্ছিলেন। এ সময় প্রাইভেটকার নিয়ে আসা ৪-৫ ছিনতাইকারী তার উরুতে ছুরিকাঘাত করে সঙ্গে থাকা ৮ লাখ টাকা নিয়ে যায়।’ তিনি আরও বলেন, ‘ধারণা করা হচ্ছে , অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের কারণে আলামিনের মৃত্যু হয়েছে। ছিনতাইকারীদের ধরতে পুলিশের একাধিক টিম অভিযান শুরু করেছে।’

ছিনতাইয়ের খবর পেয়ে পুলিশের ঊর্ধ্বতন ও ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে যান। তারা আশপাশের বাসা ও সড়কের সিসিটিভি ফুটেজ দেখে ছিনতাইকারীদের ব্যবহৃত প্রাইভেটকারটি শনাক্তের চেষ্টা করছেন বলে থানা পুলিশ জানায়।

অপরদিকে , ডেমরার গলাকাটা ব্রিজের ঢালে বিকাশের বিক্রয় প্রতিনিধিকে কুপিয়ে টাকার ব্যাগ নিয়ে গেছে ছিনতাইকারীরা। গতকাল দুপুরে এ ঘটনা ঘটেছে।

বিকাশের বিক্রয় প্রতিনিধি মাহবুবুর রহমানকে (২৯) আহতাবস্থায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির উপপরিদর্শক মো. বাচ্চু মিয়া ছিনতাইয়ের ঘটনায় মাহবুবের আহত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

বিকাশ এজেন্ট মির্জা এনায়েত হোসেন জানান, তার প্রতিষ্ঠানের নাম ‘ওয়ানজা ডিস্ট্রিবিউশন’। এটি সারুলিয়ায় অবস্থিত। ছিনতাইয়ের শিকার মাহবুব তার প্রতিষ্ঠানের বিক্রয় প্রতিনিধি। তিনি বলেন, ‘গতকাল বিভিন্ন এলাকায় তাগাদা শেষে মাহবুব অফিসের উদ্দেশে ফিরছিল। পথিমধ্যে ডেমরা রানীমহল সিনেমা হলের কাছে গলাকাটা ব্রিজের ঢালে একটি মোটরসাইকেলে করে এসে তিন জন তার পথরোধ করে। মাহবুবের কাছে থাকা টাকার ব্যাগ ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে তারা। বাধা দিতে গেলে তারা মাহবুবকে কুপিয়ে আহত করে এবং টাকার ব্যাগটি ছিনিয়ে নিয়ে যায়।’

এনায়েত হোসেন জানান, পরে সংবাদ পেয়ে আহতাবস্থায় মাহবুবকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার দু’হাত,পিঠ ও বুকে ১০/১১টি ছুরিকাঘাতের জখম রয়েছে। তিনি বলেন, ‘প্রতিদিন তাগাদা শেষে প্রায় দুলাখ টাকা নিয়ে আসতো মাহবুব। তবে গতকাল তার ব্যাগে কত টাকা ছিল,তা খোঁজ না নিয়ে বলা যাচ্ছে না।’

ঢামেকে তিন বন্দীর মৃত্যু 

 

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে তিনজন কারাবন্দীর মৃত্যু হয়েছে। তারা হচ্ছেন, মো. হিরন মিয়া (৪০) মো. ওসমান (৬০) ও আব্দুল আলীম ( ৪৯ )। গতকাল বৃহস্পতিবার চিকিৎসাধীন অবস্থায় প্রথমত দু‘জনের মৃত্যু হয়। ময়নাতদন্তের জন্য তাদের মৃতদেহ ঢামেক মর্গে রাখা হয়েছে। ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির উপপরিদর্শক মো. বাচ্চু মিয়া এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

কারারক্ষী মো.বুলবুল জানান, হিরন একটি বিষ্ফোরক মামলায় কারাগারে বন্দী ছিলেন, তিনি কারাগারে অসুস্থ হয়ে পড়লে সেখান থেকে তাকে গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ৮ টা ১০ মিনিটে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক হিরন (৪০) কে মৃত ঘোষণা করেন। এর পরপর অসুস্থাবস্থায় আরেক বন্দী মো. ওসমান (৬০) কেও মৃত ঘোষণা করেন। তাকে নিয়ে আসেন কারারক্ষী মাসুদ রানা। 

কারারক্ষী মো.হানিফ জানান, ওসমান ডাকাতি মামলায় সাজাপ্রাপ্ত বন্দী ছিলেন। তার বন্দী নম্বর (কয়েদি-২০০১/এ)। ওসমানের গ্রামের বাড়ি লক্ষ্মীপুর জেলার উত্তর চরমনিমহন। তার বাবার নাম মৃত গফুর মোল্লাহ্।

অন্যদিকে, হিরনের গ্রামের বাড়ি নরসিংদী জেলার ডাঙ্গায়। তার বাবার নাম মৃত আব্দুল মোতালেব। তার বন্দি নম্বর (হাজতি-৩৯৩২/১৮)।

অপরদিকে , ঢামেক হাসপাতালে বুধবার রাতে একজন মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত আসামীর মৃত্যু হয়েছে। ওই আসামীর নাম আব্দুল আলীম (৪৯)। তার বন্দী নম্বর (কয়েদি ২৩৭৮/এ)। ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক মো. বাচ্চু মিয়া এসব তথ্য নিশ্চিত করে জানায়, ময়নাতদন্তের জন্য মৃতদেহ ঢামেক হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

কারারক্ষী মো. ফারুক জানান, বুধবার মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত এক বন্দীকে কাশিমপুর কারাগার থেকে অসুস্থতাজনিত কারণে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে নিয়ে আসা হয়। সেখান থেকে আমরা তাকে কর্তৃপক্ষের নির্দেশে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক রাত ৯টা ৪০ মিনিটে তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তিনি আরও বলেন, ‘ওই আসামীর ব্যাপারে বিস্তারিত পরিচয় পরে বলা হবে। তবে আমরা জানতে পেরেছি আলীম একটি হত্যা মামলায় মৃতদন্ডপ্রাপ্ত আসামী হিসেবে বন্দী ছিলেন।’

বাউনিয়া বস্তিতে অগ্নিকা-

ঢাকার উত্তরা এলাকায় বাউনিয়া বস্তিতে অগ্নিকা- ঘটেছে।

ফায়ার সার্ভিস নিয়ন্ত্রণ কক্ষের ডিউটি অফিসার আতাউর রহামান জানান, গতকাল সকাল ১০টা ৫ মিনিটে ওই বস্তিতে আগুন লাগার খবর পান তারা। ফায়ার সার্ভিসের ৫টি ইউনিট গিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে এক ঘণ্টার চেষ্টায় বেলা ১১টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। আগুন লাগার কারণে বা ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ তাৎক্ষণিকভাবে জানাতে পারেননি আতাউর।

গুলীবিদ্ধ দুই ‘ডাকাত’ গ্রেফতার

কদমতলী থানা এলাকা থেকে গুলীবিদ্ধ দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে, যারা ডাকাত দলের সদস্য বলে পুলিশের দাবি।

কদমতলীর থানার ওসি এমএ জলিল জানান, মঙ্গলবার রাত আড়াইটার দিকে কদমতলীর ওয়াসা এলাকায় ‘গোলাগুলির পর’ দুজনকে গুলীবিদ্ধ অবস্থায় গ্রেপ্তার করা হয়। এছাড়া ভোরে মাতুয়াইল এলাকায় অভিযান চালিয়ে আরও দুই ‘ডাকাতকে’ গ্রেপ্তার করা হয়।

ওসি বলেন, “একদল ডাকাত বটতলা এলাকায় ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে খবর পেয়ে পুলিশ গেলে তারা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলী ছোড়ে। পুলিশও শর্টগান থেকে পাল্টা গুলী চালালে দুই ডাকাতের পায়ে গুলী লাগে।” ঘটনাস্থল থেকে তিনটি ককটেল ও ডাকাতির বিভিন্ন সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয় বলে জানান তিনি। আহত দুজনকে প্রথমে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এবং পরে সেখান থেকে পঙ্গু হাসপাতালে পাঠানো হয়। “এই দলটি ১৯ জানুয়ারি মিরাজনগরে ডাকাতি করেছিল,” বলেন ওসি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ