সোমবার ২৬ অক্টোবর ২০২০
Online Edition

ঢাকায় পুলিশ কর্তৃক আটককৃত সন্তানের সন্ধান দাবি পরিবারের

 

রাজধানীতে কবি নজরুল সরকারি কলেজের অনার্স ৩য় বর্ষের ছাত্র শাহাদাত হোসাইনকে গ্রেফতারের পর ৪ দিন পেরিয়ে গেলেও আদালতে হাজির না করায় উদ্বেগ প্রকাশ এবং অবিলম্বে তার সন্ধান দাবি করেছে তার পরিবার। 

গতকাল বৃহস্পতিবার দেয়া বিবৃতিতে গ্রেফতারকৃত শাহাদাৎ হোসাইনের পিতা শাহজাহান বলেন, গত ২৮ ফেব্রুয়ারি রাত ৮টায় রাজধানীর ওয়ারী থানাধীন নারিন্দা দক্ষিণ মৈশুন্ডি বড় মসজিদে সে এশার নামাজ পড়তে গেলে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা ৪১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সারওয়ার হোসেন আলোর লোকজন তাকে ধরে নিয়ে যায়। পরে আওয়ামী লীগের ক্লাবে আটকে রেখে নির্যাতন করে ও বাসায় এসে লুটপাট করে। এসময় তারা ২টি কম্পিউটার একটি প্রিন্টারসহ মূল্যবান জিনিসপত্র নিয়ে যায়। দীর্ঘ সময় আটক রেখে নির্যাতন করার পর ওয়ারী থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। পরের দিন রাত দশটা পর্যন্ত তাকে থানায় আটক রাখা হয়। ২৯ জানুয়ারি রাত সাড়ে দশটার সময় তাকে ডিবি পুলিশ নিয়ে যায়। ডিবি কার্যালয়ে আমি তার সাথে সাক্ষাৎ করলে পুলিশ তাকে আর হয়রানি করা হবে না বলে জানায়। কিন্তু আটকের পর ৪ দিন অতিবাহিত হলেও এখন পর্যন্ত তাকে  গ্রেফতার দেখানো হয়নি এবং আদালতেও হাজির করা হয়নি। তিনি বলেন, তাকে  গ্রেফতার প্রক্রিয়া, নির্যাতন ও আদালতে হাজির না করা সবই প্রচলিত আইনে বেআইনি। এমনকি উচ্চ আদালতের নির্দেশেরও সুস্পষ্ট লঙ্ঘন। কিন্তু পরিতাপের বিষয় স্বয়ং আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বেআইনি কর্মকা-ের ভুক্তভোগী হচ্ছে আমার নিরপরাধ সন্তান ও আমরা। যেখানে গ্রেফতারের ৩ ঘণ্টার মধ্যে গ্রেফতাকৃত ব্যক্তির স্বজনদের জানানোর জন্য উচ্চ আদালতের নির্দেশনা রয়েছে সেখানে তাকে গ্রেফতারের পর ৪ দিন পেরিয়ে গেলেও আদালতে হাজির না করায় আমারা দারুন ভাবে উদ্বিগ্ন। আমি এখন সন্তানের জীবন নিয়ে শঙ্কিত।  কেননা এভাবে গ্রেফতারের পর আদালতে হাজির না করে বহু ছাত্রকে হত্যা ও নির্যাতন করার বহু উদাহরণ রয়েছে। 

তিনি বলেন, আর সবার মত আমরাও এদেশের নাগরিক। আমরা আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল এবং সকল আইনি সুবিধা গ্রহণ করার অধিকার আমাদের আছে। আমি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের কাছে আমার সন্তানের নিরাপত্তা দাবি করছি। আমার সন্তানর সন্ধানের জন্য সাংবাদিকসহ সংশ্লিষ্ট সকলের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ