সোমবার ২৬ অক্টোবর ২০২০
Online Edition

দ্বিতীয় দিন শেষে ৩২৬ রানে এগিয়ে বাংলাদেশ

স্কোর : বাংলাদেশ : ৫১৩ (প্রথম ইনিংস)

শ্রীলংকা : ১৮৭/১ (প্রথম ইনিংস)

নুরুল আমিন মিন্টু, চট্টগ্রাম থেকে : চট্টগ্রাম টেস্টের দ্বিতীয় দিনে বৃহস্পতিবার প্রথম ইনিংসে সব উইকেট হারিয়ে ৫১৩ রান করেছে বাংলাদেশ। এর জবাবে ব্যাট করতে নেমে শ্রীলঙ্কা ১ উইকেটে নিয়েছে ১৮৭ রান। ৩২৬ রানে এগিয়ে আছে বাংলাদেশ। মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের অপরাজিত ৮৩ রানে পাঁচশ রান ছাড়িয়ে গেছে স্বাগতিক শিবির। এ পর্যন্ত টেস্টে সপ্তমবার পাঁচশ রান করল বাংলাদেশ। এটা শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দ্বিতীয়বার।

তবে বাংলাদেশের বোলিং ভাল হয়নি। প্রথম উইকেট হরানোর পর দুর্দান্তভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছে লঙ্কান শিবির। অবিচ্ছিন্ন জুটিতে মাঠে অপরাজিত আছেন কুশল মেন্ডিস ও ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা। মোস্তাফিজুর রহমানের বলে স্লিপে ক্যাচ মিস না হলে শুরুতেই মাঠ থেকে বিদায় হতেন মেন্ডিস। ব্যক্তিগত ৪ রানে জীবন পেয়ে বেশ ভুগিয়েছেন লঙ্কান ওপেনার। সেঞ্চুরি থেকে ১৭ রান দূরে তিনি। শতক হাঁকিয়ে ১০৪ রানে অপরাজিত থাকেন ওয়ানডাউনে নামা ধনাঞ্জয়া। 

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে চট্টগ্রাম টেস্টের দ্বিতীয় দিন ব্যাটিং শুরু করে আগের দিনের অপরাজিত মমিনুল হক ও মাহমুদুল্লাহ। ৯২.৪ ওভারে রঙ্গনা হেরাথের বলে কুশল মেন্ডিসের তালুবন্দি হয়ে সাজঘরে ফিরে যান মমিনুল হক। আগের দিনের ১৭৫ রান করা মমিনুল ফিরেন ১৭৬ রানে। তার ইনিংসটি সাজানো ছিল ২১৪ বলে ১৬টি চার একটি ছক্কা দিয়ে। ৫ উইকেটে রান তখন ৩৭৬। এরপর মাহমুদুল্লাহর সঙ্গী হন মোসাদ্দেক হোসেন। ৯৬.১ ওভারে রঙ্গনা হেরাথের বলে লক্ষণ সান্দাকানের গ্লাভবন্দি হন মোসাদ্দেক হোসেন। তিনি ১৫ বলে ১টি চারের সাহায্যে ৮ রান নিয়েছেন। তখন ৬ উইকেটে রান ৩৯০। এরপর ক্রিজে আসেন মেহেদি হাসান মিরাজ। ১০২.২ ওভারে ১৯ বলে ১টি চার ও ১টি ছক্কায় ২০ রান নিয়ে রান আউট হন মিরাজ। ৭ উইকেটে রান দাঁড়ায় ৪১৭। অধিনায়কের সঙ্গে যোগ হয় সানজামুল ইসলাম। ১১৯.৩ ওভারে লক্ষণ সান্দাকানের বলে নিরোশান ডিকভেলার স্ট্যাম্পিংয়ের শিকার হন সানজামুল ইসলাম। ৫৬ বলে ১টি চারের সাহায্যে ২৪ রান সংগ্রহ করেন তিনি। ৮ উইকেটে রান ৪৭৫। ক্রিজে আসেন তাইজুল ইসলাম। ১২০.২ ওভারে ৩ বলে ১ রান নিয়ে রঙ্গনা হেরথের বলে বোল্ডআউট হন তাইজুল। ৯ উইকেটে রান ৪৭৮। অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহর সাথে যোগ দেন মুস্তাফিজুর রহমান। ১২৯.৫ ওভারে সুরাঙ্গা লাকমলের বলে নিরোশান ডিকভেলার ক্যাচ হন মুস্তাফিজ। ২১ বলে ১টি ছক্কার সাহায্যে ৮ রান তুলেছেন মুস্তাফিজ। ১০ উইকেটে ৫১৩ রান। শেষ পর্যন্ত অপরাজিত ছিলেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। ১৩৪ বলে ৭টি চার ও ২টি ছক্কার সাহায্যে ব্যক্তিগত ৮৩ রান সংগ্রহ করেছেন রিয়াদ। প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশ ৫১৩ রান সংগ্রহ করেছে। এরমধ্যে প্রথমদিন নিয়েছিল ৩৭৪ রান। দ্বিতীয় দিন রান করেছে ১৩৯। প্রথম ইনিংসে শ্রীলঙ্কার পক্ষে উইকেট পেয়েছেন রঙ্গনা হেরাথ ও সুরাঙ্গা লাকমল ৩টি করে, লক্ষণ সান্দাকান ২টি ও ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা। বাংলাদেশের ৫১৩ রানের জবাবে শ্রীলঙ্কার পক্ষে প্রথম ইনিংসে ব্যাটিং শুরু করেন দিমুথ করুনারতেœ ও কুশল মেন্ডিস। ২.৩ ওভারে লঙ্কান শিবিরে আঘাত হানে মেহেদি হাসান মিরাজ। মিরাজের বলে ইমরুল কায়েসের ক্যাচ হয়ে মাঠ থেকে বিদায় নেন দিমুথ করুনারতেœ। তিনি ৯ বার ব্যাট চালিয়ে ০ রানে আউট হলে শ্রীলঙ্কার স্কোর ১ উইকেটে ০। এরপর কুশল মেন্ডিসের সাথে যোগ হন রোশেন সিলভা। দ্বিতীয় দিন শেষে কুশল মেন্ডিস ৮৩ রানে ও রোশেন সিলভা ১০৪ রানে অপরাজিত ছিলেন। শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ ৪৮ ওভারে ১ উইকেটে ১৮৭ রান। 

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

বাংলাদেশ ১ম ইনিংস: (আগের দিন ৩৭৪/৪) ১২৯.৫ ওভারে ৫১৩ (তামিম ৫২, ইমরুল ৪০, মুমিনুল ১৭৬, মুশফিক ৯২, লিটন ০, মাহমুদুল্লাহ ৮৩*, মোসাদ্দেক ৮, মিরাজ ২০, সানজামুল ২৪, তাইজুল ১, মুস্তাফিজ ৮; লাকমল ২৩.৫-৪-৬৮-৩, কুমারা ১৫-১-৭৯-০, দিলরুয়ান ২৭-৪-১১২-১, হেরাথ ৩৭-২-১৫০-৩, সান্দাকান ২২৩-১-৯২-২, ধনঞ্জয়া ৫-০-১২-০)। 

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

শ্রীলঙ্কা ১ম ইনিংস: ৪৮ ওভারে ১৮৭/১ (করুনারতেœ ০, মেন্ডিস ৮৩*, ধনঞ্জয়া ১০৪*; মুস্তাফিজ ৭-১-৩১-০, সানজামুল ১৫-১-৫২-০, মিরাজ ৮-০-৪৫-১, তাইজুল ১৭-৩-৫৬-০, মোসাদ্দেক ১-০-৩-০)।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ