মঙ্গলবার ০৪ আগস্ট ২০২০
Online Edition

বগুড়া সরকারি আজিজুল হক কলেজে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে ১০ জন আহত

বগুড়া অফিস: একুশে বই মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতিকে অতিথি না করা নিয়ে বগুড়া সরকারি আজিজুল হক কলেজে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেল তিনটায় কলেজ চত্বরে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষের কারণে বই মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান স্থগিত করা হয়।

জানা গেছে, সরকারি আজিজুল হক কলেজ কর্তৃপক্ষের উদ্যোগে প্রতি বছরের মত এবারও কলেজ চত্বরে মাসব্যাপী একুশে বই মেলার আয়োজন করা হয়। বৃহস্পতিবার বিকেল তিনটায় বই মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি করা হয় জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মমতাজ উদ্দিনকে। কিন্তু জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও জেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি মঞ্জুরুল আলম মোহনের নাম অতিথি তালিকায় না থাকায় অনুষ্ঠান শুরুর আগমুহূর্তে ছাত্রলীগ কলেজ শাখার সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রউফ গ্রুপের নেতাকর্মীরা অনুষ্ঠানস্থলে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে। এনিয়ে ছাত্রলীগ কলেজ শাখার সভাপতি মোজাম্মেল হক বুলবুল সমর্থক নেতাকর্মীদের সাথে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়। তারা অনুষ্ঠানস্থলের চেয়ার টেবিল ভাঙচুর করে পুকুরে ছুঁড়ে ফেলে। একপর্যায়ে ইটপাটকেল ও লাঠিসোটা নিয়ে উভয় গ্রুপ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। আধা ঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষ চলাকালে ইটপাটকেল ও লাঠির আঘাতে উভয় গ্রুপের কমপক্ষে ১০ নেতাকর্মী আহত হয়। আহতদের মধ্যে মিথিলা প্রসাদ ও বুলবুল আহম্মেদ নামের ছাত্রলীগের দুই কর্মীকে গুরুতর আহত অবস্থায় বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পুলিশ সংঘর্ষ থামানোর পর ছাত্রলীগ সভাপতি বুলবুল গ্রুপের পক্ষে শতাধিক বহিরাগত যুবক লাঠিসোটা নিয়ে কলেজ ক্যাম্পাসে প্রবেশ করে মহড়া দেয় এবং বই মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শুরু করার জন্য কলেজ কর্তৃপক্ষকে চাপ সৃষ্টি করে। কিন্তু পুলিশ আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতির আশঙ্কায় বহিরাগতদের ক্যাম্পাস থেকে বের করে দিয়ে পুরো ক্যাম্পাস নিয়ন্ত্রণে নেয়।

সরকারি আজিজুল হক কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর সামছ উল আলম জানান, বই মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান আপাতত স্থগিত করা হয়েছে। জরুরি বৈঠক করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ