শুক্রবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

চিরবিদায় নিলেন প্রিয়ভাই আব্দুল গাফফার

 

ফরিদপুর সংবাদদাতা : চলে গেলেন ইসলামী ছাত্রশিবিরের রাজবাড়ী জেলা শাখার সাবেক সভাপতি, ফরিদপুর পৌর জামায়াতের শূরা সদস্য আবদুল গাফফার ভাই, ইন্নালিল্লাহি অয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। শুক্রবার বিকাল ৫টায় ফরিদপুর ডায়াবেটিকস হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তিকাল করেন। তিনি দীর্ঘদিন ধরে কিডনি রোগে ভুগছিলেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৪৫ বছর। মরহুম আব্দুল গফফার একটি ছেলে ও ছোট দুইটি মেয়ে রেখে গেছেন। গত আগস্ট মাসে ঢাকা মেডিকেল ও ধানমন্ডি গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রে দীর্ঘ দিন চিকিৎসা নেন।

মরহুমের ১ম জানাযা নামায ফরিদপুর চকবাজার জামে মসজিদে বাদ এশা অনুষ্ঠিত হয়। জানাযা শেষে ফরিদপুর ডায়াবেটিকস হাসপাতালের হিমঘরে রাখা হয়। শনিবার সকালে মরহুমের নিজ গ্রামে নেওয়া হয়। মরহুমের নিজ গ্রাম জয়কৃষ্ণপুর, বাহাদুরপুর, পাংশা, রাজবাড়ীতে বাদ জোহর জানাযা শেষে দাফন করা হয়।

তিনি ইবনেসিনা ফার্মাসিউটিক্যালস এর সিনিয়র সেলস রিপ্রেজেন্টেটিভস হিসেবে কর্মরত ছিলেন। 

উল্লেখ্য আবদুল গাফফার ছিলেন ইসলামী আন্দোলনে নিবেদিত প্রাণ। ছাত্রজীবন হতেই ইসলামী আন্দোলনের সাথে ছিলেন একজন অকুতভয় বীর। তিনি রাজবাড়ী জেলার ছাত্র আন্দোলনের সর্বশেষ সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। ছাত্রজীবন শেষে বৃহত্তর আন্দোলনের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করেন।  তিনি ছিলেন ফরিদপুর পৌর জামায়াতের শূরা সদস্য। বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী, ফরিদপুর পৌরসভা শাখার নির্বাচিত মজলিশে শূরার সদস্য আব্দুল গফফার এর ইন্তিকালে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন ফরিদপুর পৌরসভা শাখার সম্মানিত আমীর ইমতিয়াজ উদ্দীন আহমেদ ও নায়েবে আমীর এস এম আবুল বাশার। তারা মরহুমের রূহের মাগফিরাত ও তার পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন। ইসলামী আন্দোলনের ভাই বোনদের মরহুমের পরিবার ও সন্তানদের জন্য দুয়া ও সহযোগিতার আহ্বান জানিয়েছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ