শনিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

রূপগঞ্জে কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে প্রতারক দম্পতি আটক

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) সংবাদদাতা : নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে কম্পিউটার ট্রেনিং সেন্টার খুলে প্রতারণা করে এক প্রতারক চক্রের বিরুদ্ধে গ্রাহকদের কয়েক কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। শুক্রবার রাতে উপজেলার ভুলতা গাউছিয়া মার্কেটের নুর ম্যানশন মার্কেট এলাকায় অভিযুক্ত প্রতারক দম্পতিকে জনতার সহায়তায় আটক করেছে রূপগঞ্জ থানা পুলিশ। 

উপজেলার সদর ইউনিয়নের ভিংরাবো এলাকার ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী আবুল খায়ের জানান, বরগুনা জেলার বামনা উপজেলার বোকাবুনিয়া গ্রামের আব্দুস সামাদের ছেলে প্রতারক আল মামুন (৩৮) রাজের সাথে ব্যবসায়ীক সখ্যতা থাকায় সরল বিশ্বাসে ভুলতা এলাকার নুরম্যানশনের ৩য় তলায় একটি কম্পিউটার ট্রেনিং সেন্টার খোলা হয়। এ সময় তার অপকর্মের সহযোগী আল মামুনের স্ত্রী সোনারগাও উপজেলার দরগা বাড়ি গ্রামের টুম্পা মনির মাধ্যমে বিগত ২০১৭ সালের ১৩ এপ্রিল হতে ধারাবাহিক ভাবে ৪০ লাখ টাকা বিনিয়োগ করেছেন তিনি। কিন্তু মাস পেরিয়ে বছর এলেও কোন লভ্যাংশ না দেয়া টাকা ফেরৎ চাইলে দেই দিচ্ছি বলে হয়রানী করে আসছিল মামুন। সম্প্রতি এসব টাকা নিয়ে ভুলতার সিংলাবো এলাকার মোল্লা বাড়ির ভাড়াবাসা থেকে উধাও হয়ে যায়।  কাঞ্চন পৌরসভার কেন্দুয়াপারা এলাকার পচু মিয়ার ছেলে ব্যবসায়ী আব্দুল বারী জানান, তার কাছ থেকেও আল মামুন ও তার স্ত্রী টুম্পামনি অপর ব্যবসায়ী আবুল খায়েরের ন্যায় একই কায়দায় নানা প্রলোভন দেখিয়ে কম্পিউটার ব্যবসার জন্য ধারাবাহিকভাবে ৫৪ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়। পরে তা ফেরত চাইলে ওই প্রতারক চক্র ভাড়া বাসা তালাবদ্ধ করে পালিয়ে যায়। একইভাবে স্থানীয় ব্যবসায়ী মজিবুর রহমানের কাছ থেকে ৩ লাখ টাকা, আফজাল মিয়ার কাছ থেকে ২ লাখ, মনির হোসেনের কাছ থেকে ১ লাখ, নয়ন মিয়ার কাছ থেকে সাড়ে ৩ লাখসহ বিভিন্ন ব্যবসায়ীদের প্রলোভনে ফেলে প্রতারনার মাধ্যমে হাতিয়ে নেয় প্রায় কয়েক কোটি টাকা। এসব টাকার লেনদেন বিষয়ে কেহই কারোর বিষয়ে জানতো না বলে জানান ভুক্তভোগীরা। সূত্র জানায়, প্রতারক চক্রটি সুকৌশলে জেলার ব্যস্ততম এলাকা ভুলতার গাউছিয়া মার্কেটে কম্পিউটার ট্রেইনিং সেন্টারের নামে গড়ে তুলে নামসর্বস্ব প্রতিষ্ঠান। খবর নিয়ে জানা যায়, এ প্রতিষ্ঠানের এনআইটিএর কোনর সনদই নেই। তবু বিভিন্ন ব্যবসায়ীর কাছ থেকে শেয়ার দেয়ার নামে প্রতারণার মাধ্যমে হাতিয়ে নেয় এসব টাকা। পরে এ টাকা আতœসাতের জন্য নিজের ঘরে তালাবদ্ধ করে পালিয়ে যায় প্রতারক দম্পতি। এদিকে পাওনাদাররা খুঁজাখুজি করে কৌশলে আটক করে পুলিশে দেয়। এ বিষয়ে ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী আবুল খায়ের ও আব্দুল বারী বাদী হয়ে পৃথক পৃথক প্রতারণার অভিযোগ মামলা দায়ের করেছেন। এ বিষয়ে রূপগঞ্জ থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইসমাইল হোসেন বলেন, মামলা নেয়া হয়েছে। প্রতারক দম্পতিকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ