শুক্রবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

খুলনায় পোল্ট্রি শিল্প মালিক সমিতির বিক্ষোভ মিছিল রাজপথে ডিম ভেঙ্গে খামারীদের প্রতিবাদ

 

খুলনা অফিস : বাংলাদেশ পোল্ট্রি খামার রক্ষা ও খুলনা পোল্ট্রি ফিস ফিড শিল্প মালিক সমিতির যৌথ উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল, সমাবেশ, সিদ্ধ ডিম খাওয়ানো ও ডিম ভাঙ্গা কর্মসূচী পালন করেছে। গতকাল শনিবার বেলা ১২টায় নগরীর কেডিএ এভিনিউ, ময়লাপোতা, মোড়ে খামারীদের বিক্ষোভ সমাবেশ, মিছিল, ডিম ভাঙ্গা ও সিদ্ধ ডিম খাওয়ানো কর্মসূচি পালিত হয়। 

খুলনা পোল্ট্রি ফিস ফিড শিল্প মালিক সমিতির বিভাগীয় সভাপতি মাওলানা ইব্রাহিম ফয়জুল্লাহের সভাপতিত্বে ও খুলনা বিভাগীয় সমন্বয়কারী ও মহাসচিব এস এম সোহরাব হোসেনের পরিচালনায় বক্তৃতা করেন-সমিতির সহ-সভাপতি সৈয়দ মো. বেলাল হোসেন, শাহ জাফর মাহমুদ মেহেতা, সাবেক সভাপতি মোঃ সালাহউদ্দিন, মো. জাফর, মো. আল মামুন, মো. আরিফুর রহমান বাবু, মো. মোজাম্মেল হক, এইচ এম সিদ্দিকুর রহমান, শেখ রেজানুল ইসলাম, কোষাধ্যক্ষ মো. মামুনুর রহমান, যুগ্ম মহাসচিব জাকির হোসেন বাবুল, এস এম হাফিজুর রহমান লিপু, সঞ্চয় ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক তালুকদার মো. হেলালুজ্জামান, প্রচার সম্পাদক গোলাম সবুর মিঞা, মহিলা সম্পাদক এডভোকেট শাহরিয়ার মোর্শেদা আহমেদ শম্পা, সাংগঠনিক সম্পাদক তপন পাল, ক্রীড়া সম্পাদক মো. আব্দুল আহাদ, নির্বাহী সদস্য শেখ আইনুল হক, শেখ আব্দুল হালিম, বদিউজ্জামান দুলাল, তুষার কান্তি পাল, মো. তরিকুল ইসলাম, মো. এনছান আলী, সামছুর রহমান বাবুল, নাজমুল তারেক তুষার, মো. আকতারুজ্জামান, রবিউল ইসলাম, মো. ইসমাইল গাজী, মো. পারভেজ বিশ্বাস, মো. মফিজুর রহমান, মো. ফারুকুজ্জামান, সরদার মোশাররফ হোসেন, মো. সোহেল রানা প্রমুখ। 

সমাবেশে খামারীরা বলেন, পোল্ট্রি মুরগী ও ডিম উৎপাদনে খরচ বেড়েছে, বেড়েছে উৎপাদন কিন্তু বাজার মূল্য এতকম যে, মুরগী খাবার, ঔষধ ও বাচ্চার দাম উঠে না। অন্যদিকে চাহিদার অতিরিক্ত উৎপাদিত ডিম ও মাংস রফতানির ব্যবস্থা নাই। তাহলে আমরা খামারি ও ব্যবসায়ীরা কোথায় যাবো? মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ মন্ত্রীর এ ব্যাপারে আশু হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়। ক্ষতিগ্রস্ত খামারীদের ইএফ ফান্ডের মাধ্যমে ঋণের ব্যবস্থা, যুগোপযোগী নীতিমালা প্রণয়ন, প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তাদের কাক্সিক্ষত সুযোগ-সুবিধা, চিন্তাধারার অভাব ও চাহিদার আলোকে উৎপাদন ও বিপণনের ব্যবস্থা করা, বহুজাতিক কোম্পানীকে পোল্ট্রি-ডেয়ারি চাষ থেকে বিতরণে অংশগ্রহণের অনুমতি বাতিল, কৃষির মত পোল্ট্রি ও ডেয়ারি শিল্পে ক্ষতিগ্রস্ত খামারিদের পুনর্বাসন প্রকল্প গ্রহণ ও বাস্তবায়ন, বীমা প্রথা চালু ও খাদ্য, বাচ্চা ও ওষুধে সরকার ঘোষিত ভর্তুকিসহ বিদ্যুৎ, কর-খাজনা ও ট্যাক্সের সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধিতে চলতি অর্থবছরের জাতীয় বাজেটে সুনির্দিষ্টভাবে পৃথক পৃথক বরাদ্দ ঘোষণার দাবি করেন বক্তারা এবং খুলনায় ন্যায্য মূল্যে ডিম ও মুরগির মাংসের পাইকারী বাজার স্থাপনে কেসিসি ও জেলা পরিষদের প্রকল্প গ্রহণের কথা বলেন। 

আগামী ৮ জানুয়ারি সন্ধ্যায় খামারিদের প্রতিবাদ সভা খুলনা পোল্ট্রি সমিতির অফিসে অনুষ্ঠিত হবে বলে ঘোষণা দেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ