বুধবার ১২ আগস্ট ২০২০
Online Edition

ছাত্রদের বাঁচাতে গিয়ে ৩ শিক্ষক লাঞ্ছিত ॥ আহত ৮

রাবি রিপোর্টার: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রতিপক্ষের মারধরের হাত থেকে ছাত্রদের বাঁচাতে গিয়ে লাঞ্ছিত হয়েছেন তিন শিক্ষক। এছাড়া ৮ শিক্ষার্থী আহত হয়েছে। রোববার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয় স্টেডিয়ামে এ ঘটনা ঘটে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সকাল ১০ টা থেকে আন্ত:বিভাগ ক্রিকেট খেলার প্রথম সেমিফাইনালে বিশ্ববিদ্যালয় ফাইন্যান্স বিভাগ ও ভূগোল ও পরিবেশ বিদ্যা বিভাগের খেলা অনুষ্ঠিত হয়।
খেলায় ৬০ রানে ফাইন্যান্স বিভাগকে হারিয়ে ফাইনালে উঠে যায় ভূগোল ও পরিবেশ বিদ্যা বিভাগের দল।
খেলা শেষে উল্লসিত ভূগোল বিভাগের দলের সদস্যরা আনন্দ উপভোগ করতে গেলেই দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এসময় ফাইন্যান্স বিভাগের শিক্ষার্থীরা ভূগোল বিভাগের শিক্ষার্থীদেরকে হাতে থাকা ব্যাট দিয়ে মারধর শুরু করেন।
এদিকে শিক্ষার্থীদের মারধর করতে থাকলে বাধা দেন ভূগোল ও পরিবেশ বিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ও সাবেক ছাত্র উপদেষ্টা ড. মিজানুর রহমান, সাবেক সহকারী প্রক্টর জিহাদ আহমেদ, বিভাগের সহকারী অধ্যাপক আব্দুল্যাহ আল মারুফ। এসময় শিক্ষকদেরকে লাঞ্ছিত করেন ফাইন্যান্স বিভাগের শিক্ষার্থীরা বলে দাবি করেন ঘটনাস্থলে থাকা শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।
অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমান বলেন, ঘটনাস্থলে থাকা ফাইন্যান্স বিভাগের শিক্ষার্থী এরশাদুর রহমান রিফাত, সজল (রাবি ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি) নেতৃত্বে ছাত্রলীগ নেতা সমীরণ কুমার মন্ডল, তন্ময়, মেহেদী হাসান তায়েব কিসের এত আনন্দ? বলে মারধর শুরু করে ভূগোল বিভাগের শিক্ষার্থীদের।
বাধা দিতে গেলে আমার হাতে ব্যাটের আঘাত লাগে। মোবাইলটিও ভেঙ্গে গেছে।
এদিকে মারধরে বিভাগের শিক্ষার্থী আলমগীর, শান্ত, কিবরিয়া, তারেক, আশিকুর রহমান জীম আহত হয়েছেন। তারা বিশ্ববিদ্যালয় চিকিৎসা কেন্দ্র থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন বলে জানান অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমান।
অন্যদিকে ঘটনাস্থলে পুলিশ, তিনজন সহকারী প্রক্টর ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন কিন্তু তারা নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করেছেন বলে দাবি করেন ভুগোল  ও পরিবেশবিদ্যা বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।
জানতে চাইলে ফাইন্যান্স বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক ড. রুস্তম আলী আহমেদ বলেন, খেলা শেষে একজন আরেকজনকে উদ্দেশ্য করে শিষ দিয়েছে এরকম একটা ঘটনার মাধ্যমে দুই পক্ষের মধ্যে মারামারি হয়েছে এবং আমাদেরও তিন শিক্ষার্থী আহত হয়েছে জানতে পেরেছি।
জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. লুৎফর রহমান বলেন, তুচ্ছ বিষয়কে কেন্দ্র করে ঝামেলার সৃষ্টি হয়। পরে উভয় পক্ষের সাথে কথা বলে মীমাংসা করা হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ