মঙ্গলবার ১৪ জুলাই ২০২০
Online Edition

‘তালাক বিল’ মুসলিমদের ধর্মীয় অধিকারে নগ্ন হস্তক্ষেপ -জামায়াতে ইসলামি হিন্দ

জামায়াতে ইসলামি হিন্দ এর নেতৃবৃন্দ

 

২ জানুয়ারি, গ্রেট কাশিয়র : ভারতের পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ লোকসভায় পাস হওয়া তাৎক্ষণিক তিন তালাক বিলকে ‘মুসলিমদের ধর্মীয় অধিকারের উপরে হস্তক্ষেপ’ বলে অভিহিত করেছে জামায়াতে ইসলামি হিন্দ।

গত সোমবার পশ্চিমবঙ্গের হাওড়া জেলায় গার্লস ইসলামিক অর্গানাইজেশনের (জিআইও) জেলা সম্মেলনে রাজ্য জামায়াতের মজলিসে শূরার সিনিয়র সদস্য নাসীম আলী দলীয় এ অবস্থানের কথা জানান।

জামায়াতে ইসলামি হিন্দের হাওড়া জেলা জনসংযোগ কর্মকর্তা শেখ লিয়াকত হোসেন বলেন, জামায়াতের মজলিশে শূরার সিনিয়র সদস্য নাসীম আলী বলেন, ‘কেন্দ্রীয় নরেন্দ্র মোদি সরকার লোকসভায় যে তালাক বিল পাস করালো তা সরাসরি ধর্মীয় অধিকারের ওপর হস্তক্ষেপ। ওই বিল আইনে পরিণত হলে ভারতীয় সংবিধানে দেশের নাগরিকদের যে অধিকার দেয়া হয়েছে সেই অধিকার খর্ব হবে। এতে নারীরাই বেশী ক্ষতিগ্রস্ত হবে। আসলে মুসলিম নারীদের মঙ্গল নয়, বরং দেশবাসীকে মৌলিক সমস্যা থেকে দৃষ্টি অন্যদিকে ঘোরানোই এর প্রধান উদ্দেশ্য।’

সম্মেলনে জিআইও’র রাজ্য সম্পাদিকা তানিয়া নাসরিন মুসলিম রাষ্ট্রের শাসকগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে অভিযোগ করে বলেন, এরা নিজ দেশের ইসলামী আন্দোলনের কর্মীদের ওপর জুলুম-নির্যাতন করে যাচ্ছে। তিনি এ ব্যাপারে মিশর, পাকিস্তান ও বাংলাদেশ সরকারের ভূমিকার তীব্র সমালোচনা করেন। কিছুদিন আগে বাংলাদেশে ইসলামি ছাত্রী সংস্থার নেতা-কর্মীদের গ্রেপ্তার করার অভিযোগ করে নিন্দা জানান তিনি।

হাওড়া জেলার উলুবেড়িয়ায় সোসাইটি আপলিপ্টমেন্ট সেন্টারে গার্লস ইসলামিক অর্গানাইজেশনের হাওড়া জেলা সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন জিআইও’র দক্ষিণবঙ্গের সম্পাদিকা মাইমুনা খাতুন, জেলা সভাপতি রমিশা খাতুন, জামায়াতের হাওড়া জেলা নাজিমা আলেয়া বেগম, জামায়াতের জেলা সম্পাদক জুলফাক্কার আলী প্রমুখ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ