বৃহস্পতিবার ০১ অক্টোবর ২০২০
Online Edition

বিজেএমসি-রহমতগঞ্জ পয়েন্ট ভাগাভাগি

 

স্পোর্টস রিপোর্টার : বাংলাদেশ প্রিমিয়ার ফুটবল লিগে অবনমনের শঙ্কায় থাকা রহমতগঞ্জ একটি পয়েন্টের দেখা পেয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচে পুরানো ঢাকার দলটি টিম বিজেএমসির সাথে গোলশূণ্য ড্র করেছে। রেলিগেশনের শঙ্কায় থাকা রহমতগঞ্জের জন্য একটি পয়েন্টও এখন অনেক মূল্যবান।তাই ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলতে থাকে কামাল বাবুর শিষ্যরা। অন্যদিকে টিম বিজেএমসি আছে টেবিলের মাঝামাঝি নিরাপদ স্থানে। সে কারণেই হয়তো তারা রক্ষণাত্মক খেলতেই বেশি সাচ্ছন্দ বোধ করেছে। ম্যাচের ১১ মিনিটে বিজেএমসির মেহদী হাসান রয়েল বক্সের বাইরে থেকে দূরপাল্লার যে কোনাকোনি শটটি নেন তা খুব সহজেই বিপদমুক্ত করতে সক্ষম হন প্রতিপক্ষ গোলরক্ষক। ২২ মিনিটে কর্ণার থেকে পোস্টেও খুব কাছে বল পেয়ে লাফিয়ে উঠেন হেড নিতে চেষ্টা করেছিলেন সোহেল। কিন্তু পারলেন না কেননা প্রস্তুত ছিলেন গোলরক্ষক আরিফুল ইসলাম। লাফিয়ে উঠে  বল গ্রিপে নিয়ে নেন। ৪০ মিনিটে দাউদা সিসে বল নিয়ে পোস্টের কাছে চলে যান। তাকে কড়া মার্কিংয়ে রেখেছিলেন বাইবেক। তাই নিজের স্বাভাবিক শটটা নিতে ব্যর্থ হন। দাউদার শট সাইড পোস্ট ঘেষে চলে যায় বাইরে। প্রথমার্ধ ছিলো গোলশুণ্য (০-০)।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকে কিছুটা এলোমেলো ফুটবল খেলা শুরু করে উভয় দলের খেলোয়াড়রা। ৬৬ মিনিটে মুকুলের কর্ণার বক্সে লাফিয়ে উঠেও বলের নাগাল পাননি বিজেএমসির ইসমাইল বাঙ্গুরা। পরের মিনিটেই বাঙ্গুরার লং পস ডান পাসে বল পেয়ে চলন্ত বলে ভলি নেন আবদুল্লাহ আল মামুন বল চলে যায় বারের অনেক উপর দিয়ে। গোল করার সুযোগটা হেলায় হারান মধ্যমাঠের এই খেলোয়াড়। ৭৩ মিনিটে ফয়সাল আহমেদের কর্ণার বক্সে পেয়েও সুযোগ কাজে লাগাতে পারেনি রহমতগঞ্জের একাধিক ফুটবলার। ৮৮ মিনিটে ফ্রি কিক পায় রহমতগঞ্জ।

 দাউদা সিসের দূরপাল্লার ফ্রি কি সরাসরি পোস্টে ঢুকে যাবার মুহুর্তে বল গ্রিপে নেন প্রতিপক্ষ গোলরক্ষক। দ্বিতীয় হলুদ কার্ড (লাল কার্ড) দেখে মাঠ ছাড়েন রহমতগঞ্জের নাজিমউদ্দিন মিঠু ( ৯০+৩)। তবে শেষ পর্যন্ত গোলশূণ্য (০-০) ড্র করেই মাঠ ছাড়ে দুই দল।উল্লেখ্য প্রথম লেগে বিজেএমসির কাছে ২-১ গোলে হেরেছিলো কামাল বাবুর শিষ্যরা।এই ড্র’তে একটি করে পয়েন্ট পেয়েছে দুই দল। ১৪ পয়েন্ট পেয়ে তলানী থেকে একধাপ উপরে উঠে কিছুটা স্বস্থি পেলো রহমতগঞ্জ। সমান পয়েন্ট নিয়ে গোলগড়ে পিছিয়ে থাকায় আবারো ১২ তম স্থানে নেমে গেলো ফরাশগঞ্জ।  

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ