বুধবার ০৫ আগস্ট ২০২০
Online Edition

‘গুরুত্বপূর্ণ’ বৈঠকে যোগ দিতে সৌদি আরব গেছেন শাহবাজ শরীফ

২৮ ডিসেম্বর, পার্সটুডে : পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফের ছোট ভাই শাহবাজ শরীফ ‘গুরুত্বপূর্ণ’ বৈঠক করার জন্য সৌদি আরব গেছেন। গত বুধবার তিনি সৌদি আরবের উদ্দেশ্যে পাকিস্তান ছাড়েন।

সরকারি এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সৌদি সফরের সময় দেশটির কর্মকর্তাদের সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক করবেন এবং তিনি ওমরা পালন করবেন। তবে বৈঠকের ধরণ সম্পর্কে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে কোনো কথা বলা হয় নি। শাহবাজ শরীফের এ সফর নিয়ে এরইমধ্যে নানা গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়েছে কারণ সফরের জন্য সৌদি সরকার বিশেষ বিমান পাঠিয়েছে। এছাড়া, পাকিস্তানের আসন্ন নির্বাচনে ক্ষমতাসীন মুসলিম লীগ নওয়াজ শরীফের দল থেকে তাকে প্রধানমন্ত্রীর পদের জন্য মনোনীত করা হয়েছে। এরপরই তিনি এ সফরে গেলেন। পাশাপাশি পাকিস্তানে নিযুক্ত সৌদি রাষ্ট্রদূত অ্যাডমিরাল নাওয়াফ আহমাদ আল-মালিকি কিছুদিন আগে প্রায় ২৪টি দেশের কূটনীতিক নিয়ে শাহবাজ শরীফের সঙ্গে বৈঠক করেন।

চলতি সপ্তাহে পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদে ইরান, তুরস্ক, রাশিয়া, চীন ও আফগানিস্তানসহ ছয়টি দেশের জাতীয় সংসদ স্পিকারদের দু দিনব্যাপী বৈঠক হয়েছে। আন্তর্জাতিক ও আঞ্চলিক ঘটনাবলীতে ওই বৈঠকের বিশেষ গুরুত্ব রয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। বৈঠকের পর ইরানের স্পিকার ড আলী লারিজানি পাকিস্তান ও চীনকে সন্ত্রাসবাদ-বিরোধী লড়াইয়ে ইরান, তুরস্ক ও রাশিয়ার সমন্বয়ে গঠিত জোটে যোগ দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

পাকিস্তানের জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী মুশাহিদুল্লাহ খান ইংরেজি দৈনিক ডন-কে বলেছেন, শাহবাজ শরীফের সফরের সময় সৌদি কর্মকর্তাদের সঙ্গে আন্তর্জাতিক ও জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ অনেক ইস্যুতে আলোচনা হবে। তিনি এ সফরকে ক্ষমতাসীন মুসলিম লীগের জন্য ভালো খবর বলে মন্তব্য করেন কিন্তু বিষয়টি ব্যাখ্যা করেন নি।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে নওয়াজ শরীফের দলের এক নেতা ডন-কে বলেছেন, “পাকিস্তানের রাজনীতিতে ভূমিকা পালনের জন্য বহু বছর ধরে আমেরিকা সৌদি আরবকে ব্যবহার করে আসছে এবং মুখ্যমন্ত্রীর সফরকে সেই দৃষ্টিকোণ থেকে দেখতে হবে।”

মুসলিম লীগের ওই নেতা এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, অন্যান্য ইস্যুর সঙ্গে পানামা পেপার্স মামলা নিয়েও অবশ্যই আলোচনা হবে। তিনি বলেন, শাহবাজ শরীফ এ মুহুর্তে কোনো কিছুর বিষয়ে প্রতিশ্রুতি দেয়ার মতো অবস্থায় নেই কিন্তু ভবিষ্যতের জন্য প্রতিশ্রুতি দিতে পারেন। পাকিস্তানের বিরোধীদলীয় নেতারাও ধারণা করছেন, শাহবাজ শরীফ দেশের ভবিষ্যত প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নিজের মর্যাদা উজ্জ¦ল করার জন্য নির্বাচনের আগে এ সফর করছেন। পাকিস্তান তেহরিকে ইনসাফ দলের মুখপাত্র ফাওয়াদ চৌধুরী উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেছেন, কোনো প্রতিষ্ঠান বা কর্তৃপক্ষকে না জানিয়েই এ সফরে কিছু প্রতিশ্রুতি দেয়া হতে পারে। তিনি বলেন, এ সফরের লক্ষ্য-উদ্দেশ্যকে জনগণের পক্ষ থেকে গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু হিসেবে দেখা উচিত। 

নওয়াজ শরীফ পরিবারের সঙ্গে সৌদি আরবের বিশেষ সম্পর্ক রয়েছে এবং জেনারেল পারভেজ মুশাররফের সামরিক অভ্যুত্থানের পর নওয়াজ শরীফ সপরিবারে সৌদি আরবে আশ্রয় নিয়েছিলেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ