শুক্রবার ২৯ মে ২০২০
Online Edition

কিশোর পিটিয়ে কঠিন শাস্তির মুখে ক্রিকেটার সাব্বির

স্পোর্টস রিপোর্টার : কঠিন শাস্তির মুখে জাতীয় দলের ক্রিকেটার সাব্বির রহমান। জাতীয় ক্রিকেট লিগের খেলা চলাকালীন সময়ে দশ বছর বয়সি এক কিশোরকে পিটিয়েছে ক্রিকেটার সাব্বির। ওয়ালটন ১৯তম জাতীয় ক্রিকেট লিগের শেষ রাউন্ডের খেলা হয়েছিল রাজশাহীর শহীদ কামরুজ্জামান স্টেডিয়ামে। প্রথমে সূচি অনুযায়ী রাজশাহীতে খেলা হওয়ার কথা ছিল না। শেষ রাউন্ডের আগেই রাজশাহী বিভাগ দ্বিতীয় স্তর থেকে প্রথম স্তরে ওঠা নিশ্চিত করে। তাই ঢাকা মেট্রোর বিপক্ষে তাদের ম্যাচটা ছিল আনুষ্ঠানিকতা মাত্র। তাই রাজশাহীর ম্যাচটি তাদের ঘরের মাঠে আয়োজন করে বিসিবি। ২০ ডিসেম্বর শেষ রাউন্ডের খেলা শুরু হয়। পরদিন দ্বিতীয় দিনে মধ্যাহ্ন বিরতির পর ইনিংস বিরতির সময় মাঠের সাইট স্ক্রিনের পেছনে এক কিশোরকে পেটান সাব্বির।  কিশোরের দোষ ছিল, মধ্যাহ্ন বিরতিতে যাওয়ার সময় ড্রেসিং রুমের কাছের গ্যালারি  থেকে সাব্বিরকে ‘বিড়াল’ বলে ডাক দেয়! ধূসর চোখের কারণে সাব্বিরকে ‘বিড়াল’ বলে সম্বোধন করেছিল সে। পরবর্তীতে স্থানীয় পরিচিতদের দিয়ে ওই কিশোরকে ডেকে আনেন সাব্বির। ম্যাচের তৃতীয় আম্পায়ার তাৎক্ষণিক বিষয়টি ম্যাচ রেফারির কাছে জানান। এবং ম্যাচ রেফারি নিজের রিপোর্টে সাব্বিরের ঘটনাটি ক্রিকেট অপারেশনস কমিটিকে জানিয়েছে। এর একদিন পর সাব্বির ও দলের ম্যানেজারকে ডেকে তাদের বক্তব্য শোনেন ম্যাচ রেফারি। ২২ ডিসেম্বর সাব্বিরের বিরুদ্ধে গুরুতর শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগ এনে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডেও (বিসিবি) ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগে ম্যাচ রেফারি শওকাতুর রহমান প্রতিবেদন জমা দিয়েছেন বলে জানা গেছে। কোনও খেলোয়াড় মাঠে কাউকে লাঞ্ছিত করলে শাস্তি হিসেবে সর্বোচ্চ ৫ লাখ টাকা পর্যন্ত জরিমানার বিধানের পাশাপাশি ঘরোয়া লিগে কয়েকটি ম্যাচ নিষিদ্ধ হওয়ার নিয়ম আছে। মাঠের বাইরে সাব্বির রহমানকে নিয়েই হয় সবচেয়ে বেশি আলোচনা! আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ইতিমধ্যেই ৩টি ডিমেরিট পয়েন্ট রয়েছে তার। এর আগে বিপিএলে আম্পায়ারকে গালি দিয়ে বড় অঙ্কের জরিমানা গুনেছেন সাব্বির। বিপিএলের আগের আসরেও তিনি জরিমানা গুনেছিলেন ‘সিরিয়াস’ ঘটনার কারণে। সব মিলিয়ে তার নামের পাশে যুক্ত হয়েছে তিনটি ডিমেরিট পয়েন্ট। এবারের ঘটনার সত্যতা প্রমান হলে এবং বিসিবির শৃঙ্খলা কমিটি কঠোর হলে তার নামের পাশে যোগ হবে অন্তত আরো দুটি ডিমেরিট পয়েন্ট। নিয়ম অনুযায়ী চারটি ডিমেরিট পয়েন্ট দুটি সাসপেনশন পয়েন্টে পরিণত হয়। এর ফলে নিশ্চিতভাবেই ঘরোয়া ক্রিকেটের পরবর্তী টুর্নামেন্টে চার দিনের ম্যাচ হলে একটি ম্যাচ কিংবা ওয়ানডে ও টি- টোয়েন্টি হলে দুটি করে ম্যাচ নিষিদ্ধ হবেন সাব্বির।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ