শুক্রবার ২৯ মে ২০২০
Online Edition

প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে শূন্য হাতে ফিরেছেন নেতারা

 

স্টাফ রিপোর্টার: প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে শূন্য হাতে ফিরে এসেছেন নন-এমপিও শিক্ষক নেতারা। প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে কোনো ধরনের আশ্বাস ছাড়াই ফিরেছেন তারা। তাই দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে বলে নন-এমপিও শিক্ষক নেতারা ঘোষণা দিয়েছেন।

নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক কর্মচারী ফেডারেশনের নেতৃত্বে এমপিওভুক্তির দাবিতে রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে তৃতীয় দিনের মত আন্দোলন চলেছে, তাদের এ আন্দোলন আজ চতুর্থ দিনে পৌছঁবে। দাবি আদায়ে আরও কঠোর আন্দোলন করবেন বলেও জানিয়েছেন তারা।

শিক্ষকদের এমপিওভুক্তির জন্য গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে সংগঠনের সভাপতি অধ্যক্ষ গোলাম মাহামুদুন্নবী ডলার ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ ড. বিনয় ভূষণ রায় প্রধানমন্ত্রীর দফতরে যান।

অধ্যক্ষ গোলাম মাহমুদুন্নবী ডলার বলেন, অনেক আশা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর দফতরে গিয়েছিলাম। কিন্তু তিনি (প্রধানমন্ত্রী) ব্যস্ত থাকায় সাক্ষাৎ পাইনি। তবে শিক্ষকদের বর্তমান অবস্থা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বরাবর একটি আবেদনপত্র জমা দিয়েছি। আবেদন গ্রহণ করা হয়েছে। আবেদনপত্রটি প্রধানমন্ত্রীর হাতে দ্রুত পৌঁছানো হবে বলেও জানানো হয়েছে।

সাধারণ সম্পাদক বিনয় ভূষণ রায় বলেন, দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে। দাবি আদায়ে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে ঘোষণা না আসা পর্যন্ত শিক্ষকরা রাজপথে থাকবে।

তিনি আরও বলেন, আমরা ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, রাজনীতিবিদসহ সকল পেশার মানুষ তৈরি করি। অথচ যুগ যুগ ধরে শিক্ষাকতা করলেও আমাদের এমপিওভুক্ত করা হচ্ছে না। অর্থাভাবে নন-এমপিও শিক্ষকরা মানবেতর জীবন যাপন করলেও শুধু আশ্বাস আর প্রত্যাশা ছাড়া কিছুই পায়নি। দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে তাই আমরা খালি হাতে বাড়ি ফিরবো না। জীবন গেলেও আন্দোলন অব্যাহত থাকবে।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনের ব্যানারে এমপিওভুক্তির দাবিতে অবস্থান কর্মসূচি শুরু হয়। গতকাল বৃহস্পতিবার তৃতীয় দিনেরও এ আন্দোলন চলছে। বিভিন্ন দাবি সম্বলিত প্ল্যাকার্ড হাতে নিয়ে সহস্রাধিক শিক্ষক-কর্মচারী আন্দোলনে অংশ নিয়েছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ