বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

চুয়াডাঙ্গার সংবাদ

চুয়াডাঙ্গা সংবাদদাতা : নাবালিকা মেয়ের বিয়ের আয়োজন করে ১ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ডাদেশ নিয়ে জেলখানায় গিয়েছেন চুয়াডাঙ্গার ইদবার আলী। বুধবার বিকালে সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ওয়াশিমুল বারীর পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত এ কারাদ-াদেশ দেন। জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা জেলা সদরের মোমিনপুর ইউনিয়নের আমিরপুর গ্রামের জুলমত আলীর ছেলে ইদবার আলীর মেয়ে ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী অপ্রাপ্ত বয়সেই তাকে বিয়ে দিচ্ছে বলে খবর পায় চুয়াডাঙ্গা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ ইন্সপেক্টর তোজাম্মেল হক কনের পিতাকে আটক করে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে সরকারি আদেশ অমান্য করে বাল্যবিয়ের আয়োজন করায় দ-বিধির ১৮৮ ধারায় দোষী সাব্যস্ত করে ইদবার আলীকে ১ মাসের বিনাশ্রম কারাদ-াদেশ দেন। 

অগ্নিদগ্ধ হয়ে কৃষকের মৃত্যু

বিড়ির আগুনে অগ্নিদগ্ধ হয়ে মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে আলমডাঙ্গার ভাংবাড়িয়ার অল্প বুদ্ধিস¤পন্ন কৃষক বাদল প্রামাণিকের। মঙ্গলবার রাতে অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। 

সেখানে রাত ১২টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু ঘটে। তবে বাদল প্রামাণিকের অগ্নিদগ্ধ হয়ে মৃত্যুর ঘটনাকে অনেকেই রহস্যজনক বলে মন্তব্য করেছে। জানা গেছে, মৃত বাদল প্রামাণিক বিছানায় ঘুমিয়ে গেলে তার বিড়ির আগুন বিছানা, লেপকাঁথা ও শরীরের পোশাকে লেগে যায়। এক পর্যায়ে আগুনের লেলিহান শিখা শরীরে লাগলে আর্তচিৎকার করেন। পরে পরিবারের সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা হাসপাতালে নেয়। আগুন শরীরে লেগে ঘুম ভাঙলেও তিনি কম বুদ্ধিস¤পন্ন হওয়ায় নিজেকে বাঁচাতে পারেননি বলে জানা গেছে।

মাদকসেবীর জরিমানা

আলমডাঙ্গায় ভ্রাম্যমাণ আদালত ৩ মাদকসেবীকে ৫ হাজার করে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছে। বুধবার আলমডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার ওই ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। জানা গেছে, আলমডাঙ্গার হারদী গ্রামের আবু বকর মেম্বারের বাড়িতে মেম্বারের ছেলে তার বন্ধুদের সাথে নিয়ে মাদকসেবনের আড্ডা চালাচ্ছে। এমন সংবাদ পেয়ে আলমডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার রাহাত মান্নান থানা পুলিশকে নির্দেশ দেন ঘটনাস্থলে অভিযান পরিচালনার। নির্দেশ মোতাবেক আলমডাঙ্গা পুলিশ অভিযান চালিয়ে বুধবার রাত ১০টার দিকে আবু বকর মেম্বারের বাড়ি থেকে মাদকসেবন অবস্থায় ৩ মাদকসেবীকে আটক করে। মাদকসেবী ৩ জন হলো হারদী গ্রামের আবু বকরের ছেলে আব্দুল্লাহ (২২), একই গ্রামের ইদ্রিস আলীর ছেলে জান্নাত ও মনোয়ার হোসেনের ছেলে তারেক (২০)। পরে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে সকলকে ৫ হাজার টাকা করে মোট ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ