বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

নাজিরপুরে দু’সহোদরকে গাছের সাথে বেঁধে মারধরের অভিযোগ

নাজিরপুর (পিরোজপুর) সংবাদদাতা: পিরোজপুরের নাজিরপুরে জমি-জমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে শাহজামাল খান ও খালেক খান নামে দু’সহোদরকে গাছের সাথে বেঁধে মারধর করেছে প্রতিপক্ষ। এ সময় তাদের রক্ষা করার জন্য মা ও বোন এগিয়ে আসলে তাদেরকেও মারধরসহ বিবস্ত্র করে শ্লীলতাহানীর অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় গত বুধবার নাজিরপুর থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। মারধরের ঘটনায় গুরুতর আহত দুজন নাজিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত সোমবার দুপুরে উপজেলার দেউলবাড়ী ইউনিয়নের বিলডুমুরিয়া গ্রামে। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন শাহজামাল খান ও খালেক খান উপজেলার বিলডুমুরিয়া গ্রামের মৃত শামসুল হক খানের ছেলে। থানায় দেয়া লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, ভুক্তভোগী পরিবারটির সাথে একই এলাকার পাশর্^বর্তী পদ্মডুবি গ্রামের নুরুল হক বালীর সাথে জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। গত সোমবার বেলা ১১টার দিকে স্থানীয় মিজান গাজীর দোকানের সামনে বসে আহত শাহজামাল খান ও খালেক খান তাদের মরহুম নানা দোয়া অনুষ্ঠান নিয়ে আত্মীয়দের সাথে আলোচনা করছিল। এ সময় নুরুল হক বালীর ছেলে শহীদ বালীসহ তাদের লোকজনের সাথে তাদের পূর্ব-বিরোধ নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়। আলোচনা শেষে শাহজামাল খান ও খালেক খান বাড়ীর উদ্দেশ্যে রওয়া হয়ে বিলডুমুরিয়া জামে মসজিদের সামনে পৌঁছলে শহীদ বালীর নেতৃত্বে সেখানে ওৎপেতে থাকা ১২/১৩ জন সন্ত্রসী শাহজামাল খান ও খালেক খানের পথরোধ করে তাদের গাছের সাথে বেঁধে মারধর করে। এ সময় তাদের রক্ষা করতে মা খাদিজা বেগম (৬০) ও (৩৫) বোন কুলসুম এগিয়ে আসলে প্রতিপক্ষরা তাদেরকেও মারধরসহ বিবস্ত্র করে শ্লীলতাহানী ঘটায়। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন শাহজামাল খান বলেন, শহীদ বালী স্থানীয় এক প্রভাবশালীর ছত্রছায়ায় থেকে বিভিন্ন অপকর্ম করে আসছে। তাদের কবলাকৃত বৈধ জমি ভোগদখল নিয়ে বিভিন্ন ভাবে হয়রানী করেছে। এ ঘটনার জের ধরে আমাদের দু’ভাইকে গাছে বেঁধে অমানুষিকভাবে মারধর করেছে। ঘটনার পর থেকে শহীদ বালীসহ তার লোকজন আত্মগোপনে থাকায় সরেজমিনে গিয়েও তাদের পাওয়া যায়নি এবং ব্যবহৃত মুঠোফোনও বন্ধ রয়েছে। ঘটনার বিষয়ে কথা হলে নাজিরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. হাবিবুর রহমান বলেন, এ ব্যাপারে থানায় মামলা দায়ের হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ