বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

বাঘার আড়ানীতে আন্তনগর ট্রেন থামানোর দাবি

বাঘা (রাজশাহী) সংবাদদাতা : রাজশাহীর বাঘায় নিজের বুদ্ধিমত্তা তেলবাহী ট্রেন দুর্ঘটনা রুখে দেওয়া দুই সাহসী শিশুকে সংবর্ধনা দেয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২১ ডিসেম্বর) প্রশাসনের পক্ষ থেকে সকাল সাড়ে ৯টায় এ সংবর্ধনা দেয়া হয়। বিভাগীয় প্রশাসনের পক্ষে উপজেলা হলরুমে শিশু শিহাব ও লিটনকে ৫ হাজার টাকা, ক্রেস্ট, গরম কাপড়, কম্বল ও ফুলের শুভেচ্ছা দেয়া হয়। 

আয়োজিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিন রেজা এর সভাপতিত্ব  প্রধান অতিথি ছিলেন বিভাগীয় কমিশনার নুর-উর-রহমান। বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক হেলাল মাহমুদ শরীফ। উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সহকারি কমশিনার (ভূমি) যোবায়ের হোসেন, রেলওয়ের বিভাগীয় পরিবহন কর্মকর্তা শওকত জামিল মোহসী, ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আজিজুল আযম, আড়ানী পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি শহীদুজ্জামান শাহীদ, আড়ানী স্ট্রেশন মাস্টার মোস্তাফিজুর রহমান নয়ন, বাঘা প্রেস ক্লাব সভাপতি আবদুল লতিফ মিঞা, আড়ানী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক এনামুল হক।  আড়ানী স্টেশনে আন্তনগর ট্রেন থামানোর দাবি ও শিশু শিহাব ও লিটনকে আজীবন ট্রেন ভ্রমনের ফ্রি ব্যবস্থার দাবি জানানো হয় অনুষ্ঠানে । এ ছাড়া  দুই শিশুর পরিবারের সদস্যদের নিজস্ব  জমি না থাকায়  তারা রেলের জমিতে ছোট কুড়ে ঘরে বসবাস করছে।  সরকারিভাবে জমির ব্যবস্থা করে ঘর নির্মান দাবিও জানান পরিবারের সদস্যরা  । 

তবে সোমবার (১৮ ডিসেম্বর) ঘটনা জানার পর তাৎক্ষনিকভাবে রাজশাহী-৬ (বাঘা-চারঘাট) আসনের সাংসদ ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম দুই শিশুর লেখা-পড়ার সকল দায়িত্ব নিয়েছেন। তাদের দুইজনকে প্রতি মাসে এক হাজার টাকা করে নিজের অর্থায়নে বৃত্তি প্রাদন করবেন। এছাড়া দুই শিশু এসএসসি পাশের পর পূনরায় আলাদাভাবে ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন তিনি। 

অপর দিকে, মঙ্গলবার (১৯ ডিসেম্বর) রেল দূর্ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিন রেজা দুই শিশুর হাতে স্কুল ব্যাগ, টিফিন বক্র ও শীত নিবারন কম্বল পুরুস্কার হিসেবে দেন। বুধবার (২০ ডিসেম্বর) দুপুরে রেলওয়ের পাকশী বিভাগীয় ম্যানেজার অসীম কুমার তালুকদার দুই শিশুকে মাফলার বীর খ্যাত উপাধী দিয়ে নগদ অর্থ ও ক্রেস্ট দিয়ে সংবর্ধনা দেন। একই অনুষ্ঠানে স্থানীয় ঠিকাদাররা দুই শিশুকে নগদ অর্থ দিয়ে পুরুস্কৃত করেন।

উল্লেখ্য, সোমবার (১৮ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে নয়টার দিকে রাজশাহীর বাঘা উপজেলার আড়ানী স্টেশনের ৪০০ মিটার পূর্ব দিকে ঝিনা রেলগেটে রেল লাইন ভাঙা দেখে লাল মাফলার উঁচু করে দুই শিশু উড়াতে থাকে। চলন্ত তেলবাহী ট্রেন থেমে যায়। ফলে দুই শিশুর বুদ্ধিতে ইঞ্জিনসহ ৩২টি বগির তেলবাহী ট্রেন দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পাই।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ