বৃহস্পতিবার ০৪ জুন ২০২০
Online Edition

নীলফামারীতে গ্রেফতার হচ্ছে না ওয়ারেন্ট এর আসামী

 

নীলফামারী সংবাদদাতা: জেলার ডোমারে আদালতের ওয়ারেন্টকৃত আসামী দীর্ঘ এক বছরেও গ্রেফতার হচ্ছে না। আসামী ও পুলিশের যোগসাজশের ফলে উপেক্ষিত হচ্ছে আদালতের এ গ্রেফতারী পরোয়ানা। এ নিয়ে এলাকায় পুলিশের ভুমিকা নিয়ে নানা প্রশ্নের সৃষ্টি হয়েছে। জানা যায়, জেলার ডোমার উপজেলার উত্তর আমবাড়ী গ্রামের ইউনুস আলীর ছেলে রোকনুজ্জামান তার সোনালী ব্যাংক নীলফামারী শাখার  ৩২১ নং হিসাবের প্রদেয় চেক, যার নং ১৪০৩০৪৭ জমা দিয়ে জেলার জলঢাকা উপজেলার পশ্চিম কাঁঠালী গ্রামের সাহাব উদ্দিনের ছেলে আতিকুল ইসলাম এর কাছ থেকে গত ১৩/০৪/২০১৪ তারিখে ৫ লাখ টাকা ধারে নেয়। পরবর্তীতে রোকনুজ্জামান টাকা পরিশোধে গড়িমসি দেখালে আতিকুল ইসলাম নীলফামারী আমলী আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলার দীর্ঘ শুনানী শেষে নীলফামারী যুগ্ম দায়রা জজ আদালত এ বছরের ৯ জানুয়ারী/১৭ দেয়া রায়ে রোকনুজ্জামানকে ৫ লাখ টাকা জরিমানা ও ১ বছরের কারাদ- প্রদান করেন। রায়ের পর আসামী পলাতক থাকায় আদালত নীলফামারী চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্র্রেট ও নীলফামারী পুলিশ সুপারকে ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন। আদালতের সে পরোয়ানা ডোমার থানায় আসে। আদালতের নির্দেশ পেয়েও ডোমার থানা পুলিশ আসামী গ্রেফতারে অজ্ঞাত কারনে কোন কার্যকর ব্যাবস্থা না নেয়ায় অদ্যাবদি আসামী গ্রেফতার হচ্ছে না। অথচ আসামী তার বাড়ীতে কৃষিকাজ এবং নীলফামারী শ্বশান এলাকায় তার নিজ ব্যাবসা প্রতিষ্ঠানে দিব্যি ব্যাবসা চালিয়ে আসছেন। এছাড়া পুলিশ ও আদালতের পরোয়ানাভুক্ত ওই আসামী একই সাথে চলাফেরা করছে বলে অভিযোগে প্রকাশ। অথচ পুলিশ তাকে খুঁজে পাচ্ছে না। এ ব্যাপারে ডোমার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোকছেদ আলী বিভিন্ন সময়ে আসামী গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে বলে জানান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ