শনিবার ০৮ আগস্ট ২০২০
Online Edition

সাক্ষীদের পরস্পর বিরোধী বক্তব্য দিয়ে খালেদা জিয়াকে দোষী সাব্যস্ত করা যায় না ----আইনজীবী

স্টাফ রিপোর্টার : জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়ার পক্ষে তৃতীয় দিনের যুক্তিতর্ক শুনানির পরবর্তী দিন ২৬, ২৭ ও ২৮ ডিসেম্বর ধার্য্য  করা হয়েছে। এই তিনদিন তাঁর পক্ষে তাঁর আইনজীবীরা যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করবেন।

গতকাল বৃহস্পতি সকাল থেকে আইনজীবী আবদুর রেজ্জাক খান খালেদা জিয়ার পক্ষে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করেন। তিনি আদালতে বলেছেন, খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক জীবন বাধাগ্রস্ত করার জন্য এই মামলা দেয়া হয়েছে। এই মামলা ইতিহাস সৃষ্টিকারী একটি মামলা। দ-বিধি অনুযায়ী বিচার চাই। এই মামলার সঙ্গে খালেদা জিয়ার মান সম্মান জড়িত। তাঁর পরিবারের মানসম্মান জড়িত। সম্পূর্ণ মিথ্যা মামলা। আর সাক্ষীদের পরস্পর বিরোধী বক্তব্য দিয়ে খালেদা জিয়াকে দোষী সাব্যস্ত করা যায় না। সকাল থেকে শুরু হয়ে বিকেল চারটায় শুনানি শেষ হয়। 

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়ার পক্ষে আত্মপক্ষ সমর্থনে গতকাল লিখিত বক্তব্য দেয়া হয়। এর আগে বেলা ১১টার দিকে আদালত প্রাঙ্গণে হাজির হন বিএনপি চেয়ারপারসন। এর আগে বুধবারও এই মামলায় যুক্তিতর্ক শুনানির দিন ধার্য ছিল। এর আগে গত মঙ্গলবার দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) যুক্তিতর্কের শুনানি শেষ করে। 

আব্দুর রেজ্জাক খান তার বক্তব্যে বলেন, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলার সাক্ষীরা বেগম খালেদা জিয়া ক্ষমতার অপব্যবহার করেছেন এমন কোনো সরাসরি বক্তব্য দেয়নি। তাছাড়া সাক্ষীদের সাক্ষ্যে পরস্পর বিরোধী বক্তব্য পাওয়া গেছে। এতে খালেদা জিয়াকে দোষী সাব্যস্ত করা যায় না। তাছাড়া জিয়া অরফানেজ ট্রাস্টের নামে সোনালি ব্যাংকে যে অ্যাকাউন্ট খোলা হয়েছে, তাকে খালেদা জিয়ার কোনো স্বাক্ষর নেই। কোনো কাগজপত্রেও খালেদা জিয়ার সম্পৃক্ততার প্রমাণ পাওয়া যায় না। কুয়েতের আমির এ ট্রাস্টে যে অর্থ পাঠিয়েছেন তা সৌদি কমার্শিয়াল ব্যাংকের মাধ্যমে এসেছে।

তিনি আরও বলেন, বেগম খালেদা জিয়াকে এ মামলায় জবাব দেয়ার জন্য ডেকে আনা হয়েছে। এটা চকবাজার বা পাটোয়াটলির কোনো পাইকারি দোকান নয়। মামলাটি কোনো রকমভাবে শেষ করলে হবে না। মাননীয় আদালত এর চেয়ে আর বেশি কিছু বলতে পারবো না।

বেলা ১টা থেকে ২টা পর্যন্ত আদালত মুলতবি রাখা হয়। 

মধ্যাহ্ন বিরতির পর আবার শুরু হয় আইনজীবী আব্দুর রেজ্জাক খানের যুক্তি উপস্থাপন। তার বক্তব্য শেষ হলে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করবেন অপর তিন সিনিয়র আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার ও এজে মোহাম্মদ আলী।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ