বুধবার ২০ জানুয়ারি ২০২১
Online Edition

প্রয়োজনে আলাদা থাকবেন তবুও বিচ্ছেদ চান না অপু বিশ্বাস

স্টাফ রিপোর্টার : ঢাকাইয়া চলচ্চিত্রের সুপার স্টার স্বামী শাকিব খানের ডিভোর্স নোটিশ পাঠানোর খবরে সাময়িক উত্তেজিত হয়ে উঠেছিলেন ঢালিউডের জনপ্রিয় নায়িকা অপু বিশ্বাস। একমাত্র সন্তান আব্রাম খান জয়ের ভবিষ্যৎ চিন্তায় বাস্তবতার কাছে হার মানছেন তিনি।  জেদাজেদি-রেষারেষি, পাল্টা জবাব এমনকি মামলা ও সাংবাদিক সম্মেলনের চিন্তাও মাথা থেকে ঝেড়ে ফেলেছেন অপু।
ঘরের কথা নিয়ে দেশজুড়ে এরকম কাদা ছোড়াছুড়ির ঘটনা এবং মিডিয়ার কাছে নিজেদের সংসারের গোপনীয় খুঁটিনাটি বিষয়াদি তুলে ধরে শেষমেশ নিজেদেরই ক্ষতি হচ্ছে বলে মন্তব্য করছেন অপু বিশ্বাস। তাই তো ঝোঁকের মাথায় নেয়া সব এলোমেলো পরিকল্পনা পরিহার করে ঠান্ডা মাথায় সুষ্ঠু ও সুন্দর একটা সমাধান চাচ্ছেন অপু বিশ্বাস। অপুর কথাবার্তার মধ্যেও যেন এক ধরনের শিথিলতা এবং শীতলতা বিরাজ করছে। অপু যেন যেকোনো কিছুর বিনিময়েই নিজের সংসারকে জিইয়ে রাখতে চাচ্ছেন।
নিজের কিছু ভুল-ভ্রান্তির কথা স্বীকার করে অনেকটা নির্বিকার ভঙ্গিতে গতকাল শুক্রবার অপু বিশ্বাস গণমাধ্যমকে জানান, আমার অপমান আর শাকিবের অপমান একই কথা। কেউ তো আর আলাদা নই। আর আলাদা থাকার কথা চিন্তাও করতে পারছি না। আমি আমার সবকিছুর বিসর্জন দিয়েও আমার সংসারকে ফিরে পেতে চাই। আমি মানছি, কিছু বিষয়ে আমার ভুল ছিল। তার জন্য আমি অনুতপ্ত। শাকিব যদি আমাকে মেনে নিয়ে আরেকটা বিয়ে করে, সেখানেও আমি আপত্তি তুলবো না। হাসিমুখে সবকিছুই মেনে নেবো।
শাকিব খানকে ভালোবেসে দীর্ঘ নয় বছর ধরে গোপনে সংসার করা অপু আরো বলেন, শুধু তাই নয়, শাকিবের দ্বিতীয় বিয়ের ক্ষেত্রে যদি আমাকে লিখিত চুক্তি করতে হয়, তাও করবো। প্রয়োজনে আলাদা থাকবো, তবুও বিচ্ছেদ চাই না। এক পরিচেয়ে আমার স্বামী এবং সন্তানের স্বান্তনা নিয়ে বাকি জীবন কাটাতে চাই। আর শাকিবকেও একান্ত অনুরোধ করবো, আমার জন্য না হোক- অন্তত সন্তানের ভবিষ্যতের কথা বিবেচনা করে শাকিব যেন নমনীয় হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ