সোমবার ২৫ জানুয়ারি ২০২১
Online Edition

কিশোরগঞ্জে সরকারি ৩২টি গাছ কাটার অভিযোগ

নীলফামারী সংবাদদাতা: নীলফামারী কিশোরগঞ্জ উপজেলার বাহাগিলি ইউনিয়নের ডাঙ্গাপাড়া গ্রামে  অবস্থিত সিনহা পোল্ট্রি ফার্মের বিরুদ্ধে ওই এলাকার সরকারী কাঁচা সড়কের বিভিন্ন প্রজাতির ৩২ টি মূল্যবান গাছ কেটে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এলাকাবাসী অভিযোগ করে জানায় কেটে নেয়া গাছগুলোর মূল্য প্রায় তিন লাখ টাকা।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, বাহাগিলি ইউনিয়নের ডাঙ্গাপাড়া গ্রামে সিনহা পোল্ট্রি ফার্মের ভিতরে ময়নাকুড়ি হতে ডাঙ্গারহাট যাওয়ার রাস্তার দুই পাশ্বে সিনহা পোল্ট্রি ফার্মের পক্ষে কাঁটাতারের বেড়া দেয়া হয়েছে। অভিযোগ সরকারী কাঁচা সড়কের বেশ কিছু অংশ তারা দখল করে নিয়েছে। আর এই দখল প্রক্রিয়ায় ওই সড়কের মেহগনী, রেনট্রি, নিমসহ ৩২টি গাছ  কেটে ফেলা হয়।
এমন কি গাছের গোড়া গুলো  উপড়ে ফেলা হয়েছে। কেটে ফেলা গাছগুলো ময়নাকুড়ি দাখিল মাদ্রাসা মাঠে স্তুপ করে রাখা হয়েছে। এখান হতে ১৫টি গাছ ইতোমধ্যে বিক্রি করা হয়।
এ ব্যাপারে উপজেলা সহকারী কমিশনার ভুমি নাহিদ তামান্না বলেন, আমি কয়েকদিন আগে অভিযোগ পেয়ে বাহাগিলি ইউনিয়নের তহশিলদার রশিদুল ইসলামকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দিতে বলি। কিন্তু তিনি আমাকে জানায়  কারা ওই গাছগুলো কেটেছে তা তিনি জানেননা।
বাহাগিলি ইউনিয়নের তহশিলদার রশিদুল ইসলাম বলেন, আমি সিনহা পোল্ট্রি ফার্মে গিয়েছিলাম। রাস্তার দুই ধারের কয়েকটি গাছ কাটা হয়েছে, তবে কারা কেঁটেছে তা কেউ বলতে চায়নি। তবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন এলাকাবাসীর অভিযোগ এর সঙ্গে বাহাগিলি ইউনিয়নের ভুমি অফিসের সহকারী তহশিলদার রশিদুল ইসলাম, বাহাগিলি ইউপি চেয়ারম্যান ও ৪নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্যর সংশ্লিষ্টতা রয়েছে।
বাহাগিলি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান শাহ দুলু গাছ কাটার ব্যাপারে তার সংশ্লিষ্টতা থাকার কথা অস্বীকার করে বলেন, সরকারী রাস্তার ৫ থেকে ৬ টি গাছ কেটেছে এটা সত্য।
যা হবার হয়েছে আমরা সকলে সিনহা গ্রুপের সঙ্গে ঘটনাটি মিটিয়ে ফেলতে পারি।
সিনহা পোল্ট্রি ফার্মের ম্যানেজার দুলাল হোসেন বলেন তাদের লোক সরকারী কোন গাছ কাটেনি। তিনি বলেন স্থানীয় কিছু লোকজন রাতের আধারে সিনহা পোণ্ট্রি ফার্মেরও অনেক গাছ কেটে নিয়ে গেছে।
কিশোরগজ্ঞ উপজেলা নির্বাহী অফিসার এসএম মেহেদী হাসান বলেন, গাছ কাটার বিষয়ে মামলা করতে বলেছি। মামলার তদন্তে বেরিয়ে আসবে কে গাছ কেটেছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ