বৃহস্পতিবার ০৪ জুন ২০২০
Online Edition

ইবিতে ভর্তি জালিয়াতি করলে সর্বনিম্ন সময়ে সর্বোচ্চ শাস্তি

ইবি সংবাদদাতা : ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় আসন্ন ২০১৭-১৮ স্নাতক (সম্মান) ১ম বর্ষে ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতি করলে সর্বনিম্ন সময়ে সর্বোচ্চ শাস্তির ঘোষণা দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। প্রশ্ন ফাঁসের উড়ো কথায় কান না দিয়ে মেধার পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে ভর্তি হওয়ার জন্য শিক্ষার্থীদের অনুরোধ করেছেন প্রশাসন। কেউ জালিয়াতি বা জালিয়াতি চক্রের সহযোগিতা করলে সর্বনি¤œ ৩০ সেকেন্ডে সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করা হবে বলে জানিয়েছেন ভিসি প্রফেসর ড. মোঃ হারুন-উর-রশিদ আসকারী।
ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষা আগামী ১ডিসেম্বর শুক্রবার শুরু হচ্ছে। চলবে ৫ডিসেম্বর পর্যন্ত। এবছর ভর্তি পরীক্ষায় ২২৭৫টি আসনের বিপরীতে ৮৭হাজার ৩৮৮জন শিক্ষার্থী আবেদন করেছে। ২৯ নভেম্বর রাত ১২টা পর্যন্ত ভর্তি পরীক্ষার প্রবেশপত্র উত্তোলন করা যাবে। ভর্তি পরীক্ষা সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য বিশ্ববিদ্যালয় ওয়েব সাইট (www.iu.ac.bd) থেকে জানা যাবে।
ভর্তি পরীক্ষা উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন গতকাল বুধবার বিকাল ৪টায় প্রশাসন ভবনের সভা কক্ষে সংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভার আয়োজন করে। ভর্তি পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে প্রশাসনকে পরামর্শ প্রদান করেন বিশ্ববিদ্যালয় কর্তব্যরত সাংবাদিক সমিতি ও প্রেস ক্লাবে সদস্যরা। এসময় উপস্থিত ছিলেন ভিসি প্রফেসর ড. মোঃ হারুন-উর-রশিদ আসকারী, প্রো-ভিসি প্রফেসর ড. মোঃ শাহিনুর রহমান, ট্রেজারার প্রফেসর ড. মোঃ সেলিম তোহা, রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এস.এম আব্দুল লতিফ, প্রক্টর প্রফেসর ড. মোঃ মাহবুবর রহমান, আইআইইআর‘র পরিচালক প্রফেসর ড. মোহাঃ মেহের আলী,তথ্য প্রকাশনা ও জনসংযোগ অফিসের উপ-পরিচালক মোঃ আতাউল হকসহ সহকারী প্রক্টর ও জন সংযোগ অফিসের কর্মকর্তাবৃন্দ।
এসময় সাংবাদিকরা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে ভর্তি পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে প্রশ্ন ফাঁস ও জালিয়াতি চক্রের ব্যাপারে কঠোরতা, নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতা বৃদ্ধি করা, হলে কর্তব্যরতদের সচেতনতা বৃদ্ধি, পরীক্ষার হলে প্রবেশ পথে ইলেক্ট্রনিক্স্র ডিটেক্টর দিয়ে চেকিং, ভর্তিচ্ছুদের ইভটিজিং, র‌্যাগ বা হয়রানি না করা, অভিভাবকদের বসার ব্যবস্থা করা, পরীক্ষা পরবর্তী সুষ্ঠুভাবে ভর্তি হওয়াসহ ইত্যাদি বিষয়ে পরামর্শ প্রদান করেন।
মতবিনিময়কালে ভিসি প্রসের ড. মোঃ হারুন-উর-রশিদ আসকারী বলেন,‘নিñিদ্র নিরাপত্তায় সম্পূর্ণ স্বচ্ছভাবে ভর্তি পরীক্ষা গ্রহনের উদ্দ্যোগ নেওয়া হয়েছে। প্রশ্ন ফাঁসের নামে উড়ো কথায় কান না দিয়ে মেধার পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে ভর্তি হওয়ার জন্য শিক্ষার্থীদের প্রতি অনুরোধ রইল। জালিয়াতি বা জালিয়াতি চক্রের সাথে কাউকে সংশ্লিষ্ট পেলে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে সর্বনিম্ন ৩০ সেকেন্ডে সর্বোচ্চ শাস্তি দেওয়া হবে। কোটায় ভর্তিচ্ছুদের বিষয়ে তিনি বলেন,‘যোগ্যতা নিয়ে কোটায় ভর্তি হতে হবে। কোটায় ভর্তি হতে যে শর্ত দেওয়া হয়েছে তা কোনভাবে কমানো হবে না।’
তিনি ভর্তি পরীক্ষা সফল ও সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে সকলের সহযোগিতা কামনা করেছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ