সোমবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১
Online Edition

জমি দখল ও হামলার প্রতিবাদে সাংবাদিক সম্মেলন

নাজিরপুর (পিরোজপুর) সংবাদদাতা: পিরোজপুর জেলার নাজিরপুরে একটি সংখ্যালঘু পরিবারের উপর অন্যায়ভাবে ১ একর জমি ও বাড়ী জোর করে  আত্মসাৎ, দখল এবং হত্যার হুমকির কারণে, ওই পরিবার গতকাল নাজিরপুর প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলন করে। উপজেলার শেখ মাটিয়া ইউনিয়নের মৌখালী গ্রামের মৃত: সুমন্ত কুমার ভক্তর ছেলে এ্যাডভোকেট তাপস কুমার ভক্ত  লিখিত অভিযোগ পাঠ করে বিভিন্ন  পত্রিকার সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে জানান, আমার বসত ঘরের দক্ষিণে পাশে ২ঘর প্রতিবেশী। মানিক শেখের ছেলে আফজাল শেখ সহ ৩পুত্র ২কন্যা স্ত্রী সহ ০৬ শতাংশ বাড়ী ভূমির দলিল করে সম্পূর্ন বে-আইনী ও অন্যায় ভাবে  আমাদের প্রায় ১.০০ একর ভূমি দলিল করে আত্মসাৎ সহ  কু-কর্মে লিপ্ত রয়েছে। আমার ১একর বাড়ী ভূমি দখল করার পর আমার বসত ঘর অবৈধ ভাবে দখল করতে আসায় এবং আমার নিকট ২,০০,০০০/ (দুই লক্ষ) টাকা চাঁদা দাবী করায় আমি তাদের বিরুদ্ধে বিজ্ঞ আদালতে একটি মামলা দায়ের করি জি আর নং ৫৯/১৭। আসামী গণহাজতে গেলে , আসামী পক্ষের আত্মীয় স্বজন মিমাংসার প্রস্তাব করে, আমি তাহা মানিয়া আতিয়ার রহমান চৌধুরী মধ্যস্থতায় শালিসী বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত বৈঠকে শালিশ গণ পক্ষ উভয় পক্ষের কাগজ পত্র ও দলিল পর্যালোচনা করেন। সিদ্ধান্ত নেয় আফজাল এর ০৬ শতাংশ বাড়ী ভূমি দলিল রয়েছে বাকী সম্পওির মালিক আমি, ১৯শতাংশ বাড়ী ও ভূমির সিদ্ধান্ত নেয় হয় আফজাল গংদের । মিমাংসার জন্য আমাকে ৪০শতাংশ সম্পওি দেয়ার কথা বলে এবং ৬০ শতাংশ সম্পওি আফজাল দেয়ার কথা বলে। আমি মিমাংসার জন্য শালিশ গণের সিদ্ধান্ত মানিয়া নেই। অঙ্গীকার নামায় অঙ্গীকার করে যে দখল, হুমকী,হামলা থেকে বিরত থাকব বলে, বিজ্ঞ আদালত থেকে  মামলাটি প্রত্যাহার করার পর গত ১৬-১১-২০১৭ ইং রোজ বৃহস্পতিবার বেলা ১১ টা হতে ১টা পর্যন্ত  উক্ত আসামীরা এবং তার ভাড়াটিয়া সন্ত্রাস বাহিনী দ্বারা ,আমার ভোগদখলীয় সম্পওির চারদিকে ঘেরা ৫০টি পাকা পিলার ও ৫মন তারকাটা বেড়ার  তারা উপড়াইয়া নিয়া যায়। স্থানীয় প্রতিবেশীর সম্মূখে বিভিন্ন ভয় ভীতি জখমের হুমকি প্রধান করেন।আমার মা আমাকে মোবাইল বিষয়টি জানালে, আমি গত ১৭-১১-২০১৭ইং তারিখে উক্ত ঘটনা পিরোজপুর বার কাউন্সিল জানালে বিষটি। আইনজীবী সমিতির সভাপতি সহ  ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে এবং আইনী ব্যবস্থা নেয়ার পরামর্শ দেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ