শনিবার ০৮ আগস্ট ২০২০
Online Edition

মোহামেডানকে হারিয়ে জয়ের ধারায় আবাহনী

স্পোর্টস রিপোর্টার: বাংলাদেশ প্রিমিয়ার ফুটবলের ফিরতি পর্বেও প্রতিরোধ গড়তে পারলোনা ঢাকা মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব। প্রথম পর্বের মত ফিরতি পর্বেও জয় নিয়ে মাঠ ছাড়লো গত আসরের শিরোপা জয়ী ঢাকা আবাহনী লিমিটেড। গতকাল বুধবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত খেলায় ঢাকা আবাহনী ২-০ গোলে জয় পায়।  শ’পাঁচেক দর্শকদের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত খেলায় দুটি গোলই করেছে বিজয়ী দলের নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ড সানডে সিজোবা। অপরদিকে পেনাল্টি পেয়েও গোল পার্থক্য কমাতে পারেনি মোহামেডান। পেনাল্টি থেকে নাইজেরিয়ান মিডফিল্ডার স্যামসন ইলিয়াসুর নেয়া শটটি বারের পাশ ঘেঁষে চলে যায় মাঠের বাইরে। শুরুটা দু’দলেরই ছিল দুর্দান্ত। বল পাসিংয়েও সমান ছিলেন আবাহনী ও মোহামেডানের ফুটবলাররা। তবে প্রথমার্ধের শেষ মুহূর্তে পেনাল্টি থেকে গোল করে এগিয়ে যায় আবাহনী। মোহামেডানের ডিফেন্ডার আসাদুজ্জামান বাবলু নিজেদের বক্সে অবৈধভাবে বাধা দিয়ে ফেলে দেন আবাহনীর সানডে সিজোবাকে। সঙ্গে সঙ্গে বাবলুকে হলুদ কার্ড দেখানোর পাশাপাশি পেনাল্টিরও নিদের্শ দেন রেফারি মিজানুর রহমান। সেই পেনাল্টি থেকে গোল করে আবাহনীকে এগিয়ে দেন নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ড সানডে (১-০)। দ্বিতীয়ার্ধে গোল শোধের প্রত্যাশায় মরিয়া হয়ে খেলতে থাকে সাদা কালোরা। দু’টি নিশ্চিত গোলের সুযোগ নষ্ট করে মতিঝিল পাড়ার ক্লাবটি। পেনাল্টি থেকে গোল করে সমতা আনার একটি সহজ সুযোগ আসে মোহামেডানেরও। ৫৮ মিনিটে নিজেদের বক্সে হ্যান্ডবল করে আবাহনীর সর্বনাশ ডেকে আনেন ডিফেন্ডার নাসির উদ্দিন চৌধুরী। পেনাল্টি পায় সাদাকালোরা। কিন্তু নাইজেরিয়ান মিডফিল্ডার স্যামসন ইলিয়াসুর গড়ানো শট পোস্টের বাইরে চলে গেলে উল্লাসে ফেটে পড়ে আবাহনী সমর্থকরা। মাথায় হাত দিয়ে বসে পড়েন মোহামেডানের খেলোয়াড় ও সমর্থকরা। উল্টো ব্যবধান আরও বাড়িয়ে দেন সানডে সিজোবা। ৫৮ মিনিটে বাঁ প্রান্ত দিয়ে নাবিব নেওয়াজ জীবন ক্রস করেন। বক্সের ভেতরে থাকা সানডে আলতো করে মাথা ছুঁইয়ে দেন বলে পরাস্ত হন মোহামেডানের গোলকিপার মামুন খান (২-০)। পরে আর গোল শোধ করে ম্যাচে ফেরা হয়নি মোহামেডানের। ফলে ফিরতি দেখায় চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী সাদা কালোদের ২-০ গোলে হারিয়েই মাঠ ছাড়ে আকাশী হলুদ শিবির। এই জয়ে ১৪ ম্যাচে ৩০ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের তৃতীয়স্থানেই থাকলো ঢাকা আবাহনী। অন্যদিকে ১৭ পয়েন্ট নিয়ে ষষ্ঠস্থানেই থাকলো সমান ম্যাচ খেলা মোহামেডান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ