বুধবার ০৫ আগস্ট ২০২০
Online Edition

মেয়র ১৩ কাউন্সিলর ২২৬ ও মহিলা কাউন্সিলর পদে ৬৭ মনোনয়ন দাখিল

রংপুর অফিস : শান্তিপূর্ণভাবে আগামী ২১ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিতব্য রংপুর সিটি কর্পোরেশনে নির্বাচনে লড়াইয়ের জন্য মনোনয়ন দাখিল করেছেন মেয়র পদে ১৩, মহিলা কাউন্সিলর পদে ৬৭ এবং কাউন্সিলর পদে ২২৬ জন।
রংপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে রিটার্নিং কর্মকর্তার সহায়ক কর্মকর্তা আবু সাঈম জানান, বুধবার মনোনয়নপত্র গ্রহণ ও দাখিলের শেষ দিনে মেয়র পদে জাতীয় পার্টি মনোনিত মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, আওয়ামী লীগ মনোনিত সরফুদ্দীন আহমেদ ঝন্টু, জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি মনোনিত কাওছার জামান বাবলা, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনিত এটিএম গোলাম মোস্তফা বাবু, বাসদ মনোনিত আব্দুল কুদ্দুস, স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে একেএম আব্দুর রউফ মানিক, আব্দুল মজিদ বীর প্রতীক, হোসেন মকবুল শাহরিয়ার আসিফ, নাজমুল ইসলাম নাজু, সুইটি আনজুম, শাকিল রায়হান এবং মেহেদী হাসান বনি মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। এছাড়াও রাশেক রহমান ফরম তুললেও তিনি জমা দেননি। অন্যদিকে ১১টি সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ৬৭ জন মনোনয়ন তুলে জমাও দিয়েছেন ৬৭ জন। এছাড়া ৩৩টি সাধারণ কাউন্সিলর পদের জন্য ২৩১ জন মনোনয়ন ফরম তুললেও জমা দিয়েছেন ২২৬ জন।
ঘোষিত তফশিল অনুযায়ী মনোয়নপত্র যাছাই বাছাই ২৫ থেকে ২৬ নবেম্বর, মনোয়নপত্র বাছাইয়ের বিরুদ্ধে আপিল দায়ের ২৭ থেকে ২৯ নবেম্বর, আপিল নিষ্পত্তি ৩০ নবেম্বর, প্রার্থীতা প্রত্যাহার ৩রা ডিসেম্বর এবং প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হবে ৪ঠা ডিসেম্বর বলেও জানান ইসির এই কর্মকর্তা।
আগামী ২১ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে দ্বিতীয় বারের মতো এই সিটির ভোট। মোট ১৯৬ টি ভোটকেন্দ্েের  ১ হাজার ১৭৭টি ভোটকক্ষে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এবার এখানে ৩ লাখ ৮৮ হাজার ৪২১ ভোটারের মধ্যে রয়েছেন পুরুষ ১ লাখ ৯৬ হাজার ৬৫৯ এবং নারী ১ লাখ ৯১ হাজার ৭৬২ জন। ২০১২ সালের ২০ ডিসেম্বর প্রথমবারের মতো রংপুর সিটি কর্পোরেশনে ভোট হয়েছিল। এতে হাঁস প্রতীক নিয়ে মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফাকে হারিয়ে মেয়র হয়েছিলেন মোটরসাইকেল প্রতীকের সরফুদ্দীন আাহম্মেদ ঝন্টু। এবারও তারাই প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী এই নির্বাচনে। শুধু পরিবর্তন হবে প্রতীকের। এবার মোস্তফা লাঙ্গল এবং ঝন্টু নৌকার প্রতীক নিয়ে লড়ছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ