মঙ্গলবার ০২ জুন ২০২০
Online Edition

সাবেক ডেপুটি স্পিকার আখতার হামিদ সিদ্দিকী আর নেই

স্টাফ রিপোর্টার: অষ্টম সংসদের ডেপুটি স্পিকার আখতার হামিদ সিদ্দিকী চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল রোববার দুপুরে গুলশানের ইউনাটেড হাসপাতালে মারা গেছেন।( ইন্নাল্লিাহে ওয়া ইন্না ইলাইহে রাজিউন) মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো ৭১ বছর। বিএনপির স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. ফাওয়াজ হোসেন শুভ বলেন, ফুসফুসের ক্যান্সারে আক্রান্ত আখতার হামিদ সিদ্দিকী দুপুর ১২টা ১০ মিনিটে মারা গেছেন। গত দুইদিন আগে তিনি ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য ছিলেন আখতার হামিদ সিদ্দিকী। বিএনপির ও পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, আজ সোমবার তার নির্ব্চানী এলাকায় তাকে দাফন করা হবে।
এদিকে গতকাল বাদ আসর নয়া পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে তার নামাযে জানাযা অনুষ্ঠিত হয়। এতে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ সিনিয়র নেতারা উপস্থিত ছিলেন। জানাযার আগে তার কফিনে দলের পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয়। পরে রাজধানীর বারডেম হাসপাতালের হিমঘরে তার লাশ রাখা হয়। আজ সোমবার সকালে জাতীয় সংসদের দক্ষিণ প্রাঙ্গণে তার দ্বিতীয় জানাযা অনুষ্ঠিত হবে। এরপর লাশ গ্রামের বাড়ি নওগাঁয় নেওয়া হবে। সেখানে তৃতীয় জানাযার পর পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে।
সাবেক ডেপুটি স্পিকার আখতার সিদ্দিকীর মৃত্যুতে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া ও মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর  ভারপ্রাপ্ত আমীর  অধ্যাপক মুজিবুর রহমান, বিকল্পধারার সভাপতি অধ্যাপক বদরুদ্দোজা চৌধুরী শোক প্রকাশ করে বিবৃতি দিয়েছেন। তারা শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন। মৃত্যুকালে আখতার হামিদ সিদ্দিকী স্ত্রী নাজনীন সিদ্দিকী, দুই ছেলে পারভেজ আরেফিন সিদ্দিকী, মেজবাহ আরেফিন সিদ্দিকী, মেয়ে ফারিয়া আজীম সিদ্দিকীকে রেখে গেছে।
আখতার হামিদ সিদ্দিকীর জন্ম ১৯৪৭ সালে নওগাঁ। তিনি ঢাকা কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পাস করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভ করে রাজনীতিতে প্রবেশ করেন। বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত হয়ে আখতার হামিদ সিদ্দিকী ৯১ সালের নির্বাচন থেকে শুরু করে চার বার নওগাঁও- ৩ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।
আখতার হামিদের বড় ছেলে পারভেজ আরেফিন সিদ্দিকী বলেন, বাবার লাশ ইউনাটেড হাসপাতালের হিম ঘরে আছে। সোমবার সকাল ১০টায় সংসদ ভবনে জানাযা হবে। এরপর তার নির্বাচনী এলাকায় নিয়ে জানাযা শেষে দাফন করা হবে। আখতার হামিদ সিদ্দিকী নওগাঁ জেলা বিএনপিরও সভাপতি ছিলেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ