বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

খুলনায় গৃহবধূ সোনিয়ার আত্মহত্যার প্ররোচনাকারীরা সাত দিনেও গ্রেফতার হয়নি ॥ এলাকায় ক্ষোভ

 

খুলনা অফিস : খুলনা মহানগরীর জোড়াগেট সিএন্ডবি আবাসিক এলাকায় গৃহবধূ মরিয়ম আক্তার সোনিয়া (২৭) আত্মহত্যা প্ররোচনাকারীদের ৭ দিনেও গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। সোনিয়ার পরিবার বলছে প্রতিনিয়ত নির্যাতন করেই তাদের মেয়েকে হত্যা করা হয়েছে। এদিকে তদন্ত কর্মকর্তার কাছে নির্যাতন করে হত্যার অভিযোগ করেছে প্রতিবেশীরাও।

উল্লেখ্য, নগরীর সিএন্ডবি আবাসিক এলাকায় গত ১১ নবেম্বর বিষক্রিয়ায় মৃত্যুবরণ করেন গৃহবধূ মরিয়ম আক্তার সোনিয়া। সোনিয়ার পরিবারের অভিযোগ খাবারের সাথে বিষ খাইয়ে হত্যা করা হয় তাকে। মৃত্যুর দু’দিনের মাথায় সোনাডাঙ্গা মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন গৃহবধূর পিতা মো. আবুল কাশেম মিঠু। পরে প্রতিবেশী ও চিকিৎসকদের সাথে কথা বলে নির্যাতনের বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে অভিযোগটি পরে আত্মহত্যা প্ররোচনার মামলা হিসাবে রুজু করা হয়। এতে গৃহবধূর স্বামী বাবা মা, বোনসহ ৫জনকে আসামী করা হয়। মামলার পর পুলিশ আসামীদের গ্রেফতারে বাসায় অভিযান চালালেও সেখানে কাউকে পায়নি। এদিকে মৃত্যুর ৭ দিনের মাথায় কোন আসামী গ্রেফতার না হওয়ায় হতাশা প্রকাশ করেছেন সোনিয়ার পরিবার ও প্রতিবেশীরা।

সোনিয়ার পিতা আবুল কাশেম বলেন পরিবারের অমতে বিয়ে করায় ওদের নির্যাতনের কথা আমাদের কখনো বলতে চায়নি। প্রতিবেশীরাই আমাদের জানাতো। ফোন করে সোনিয়ার শ্বশুর-শাশুড়িকে জিজ্ঞাসা করলে আমাদের গালিগালাজ করতো। প্রতিবেশীদের মাধ্যমে জানতে পারি আমার মেয়ের খাবারের সাথে ইঁদুর মারার ওষুধ খাইয়ে তাকে হত্যা করা হয়েছে।

তদন্ত কর্মকর্তা মো. জেল্লাল হোসেন বলেন, আসামীদের বাড়িসহ সম্ভাব্য জায়গাগুলোতে একাধিক অভিযান পরিচালিত হয়েছে। তাদের পাওয়া যায়নি। তবে খুব শিগগিরই সকল আসামীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ