শুক্রবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

ফেনীতে কৃষি যান্ত্রিকীকরণ উদ্বুদ্ধ হচ্ছে কৃষকরা

ফেনী: কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উদ্যোগে কৃষি উপকরণ বিতরণ

ফেনী সংবাদদাতা: ফেনীতে ধান কাটার যন্ত্র রিপার মেশিনে উদ্বুদ্ধ হচ্ছে কৃষকরা। খরচ সাশ্রয় ও সরকারি সহায়তায় অর্ধেক মূল্যে পেয়ে খুশি তারা। গত মঙ্গলবার সদর উপজেলার ফাজিলপুর ইউনিয়নের এক কৃষককে মেশিন প্রদান করা হয়। ইতিমধ্যে সদর উপজেলায় আরো দুটি সহ জেলায় ৩৬টি মেশিন ব্যবহৃত হচ্ছে।
কৃষি বিভাগ সূত্র জানায়, কৃষি বিভাগের উদ্যোগে ৫০শতাংশ উন্নয়ন সহায়তায় খামার যান্ত্রিকীকরণ প্রকল্পের আওতায় কৃষকদের রিপার মেশিন বিতরণ করা হচ্ছে। ১ লাখ ৮০ হাজার টাকার মূল্যের মেশিন ৯০ হাজার টাকায় বিক্রি করা হয়। এ মেশিন দিয়ে ১ একর কাটতে ১ লিটার পরিমান তেল খরচ হয়। প্রতিঘণ্টায় ৭০ শতক জমির ধান কাটা যায়।
গতকাল দুপুরে ফাজিলপুর ইউনিয়নের খাইয়ারা গ্রামের করিমুল হকের ছেলে মোহাম্মদ আলমকে রিপার মেশিন প্রদান করা হয়। এ সময় সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুর রহমান বিকম, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: মামুন, সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আবু নঈম মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন, সদর উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা মো: রাফিউল ইসলাম, ফাজিলপুর ইউনিয়ন উপ-সহকারি কর্মকর্তা জয়নাল আবদীন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
সূত্র আরো জানায়, এর আগে বালিগাঁও ও মোটবী ইউনিয়নের আলোকদিয়ায় দু’টি রিপার মেশিন দেয়া হয়। এছাড়া মোটবী ইউনিয়নে একটি কম্বাইনড হার্বেস্টার মেশিন রয়েছে। ওই মেশিনে ধান কাটা, মাড়াই ও বস্তাভর্তি করা হয়।
সংশ্লিষ্টরা জানান, চাষাবাদের সবপর্যায়ে আধুনিক যন্ত্রপাতি ব্যবহারে যদি কৃষকদের উদ্বুদ্ধ করা যায় তাহলে ফসলের উৎপাদন খরচ অনেক কমে যাবে। তারা লাভের মুখ দেখবে।
সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আবু নঈম মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন জানান, কৃষিতে বিপ্লব ঘটাতে চাষাবাদের সব পর্যায়ে আধুনিক যন্ত্রপাতি ব্যবহার করতে হবে। তাহলেই আমরা কাঙ্খিত সফলতা পাব। যন্ত্র ব্যবহারে অল্প সময়ে ধান কাটা শেষ হলে পরবর্তীতে মশুর, সরিষা, ফেলন সহ বিভিন্ন ফসল করতে পারবে। ফসলের নিবিড়তা বাড়লে চাহিদানুপাতে খাদ্য উৎপাদনে কৃষক-সরকার উভয়ই লাভবান হবে।
জানতে চাইলে জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক ড. মোহাম্মদ খালেদ কামাল বলেন, কৃষিজমিতে আধুনিক যন্ত্রপাতি ব্যবহারের মাধ্যমে শ্রমিক সংকট দূর হবে। ফলে খুব স্বল্প সময় ও স্বল্প খরচে ধান কাটা যাবে। এতে কৃষকরা আরো বেশি লাভবানের পাশাপাশি ফসল উৎপাদনে আগ্রহী হচ্ছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ