মঙ্গলবার ১১ আগস্ট ২০২০
Online Edition

ফুলবাড়ীয়ায় বৃষ্টি ও ঝড়ো হাওয়ায় রোপা আমন ধানের ব্যাপক ক্ষতি

ফুলবাড়িয়া (ময়মনসিংহ): অসময়ে বৃষ্টি ও ঝড়ো হাওয়ায় নুয়ে পড়া রোপা আমন ধান ক্ষেত। ছবিটি উপজেলার বাকতা ইউনিয়নের কৈয়ারচালা গ্রাম থেকে তোলা

ফুলবাড়ীয়া (ময়মনসিংহ) সংবাদদাতা: ময়মনসিংহের ফুলবাড়ীয়া উপজেলায় টানা বৃষ্টি ও ঝড়ো হাওয়ায় রোপা আমন ধানের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। ১৩ টি ইউনিয়নের বিস্তৃন্য রোপা আমন ধান ক্ষেত এখন কাঁদা মাটির সাথে লেপটে গেছে। কৃষক রোপা আমনের ফলন অর্ধেকে নেমে আসার আশংকা করছেন। মাঠ ঘুরে দেখা গেছে কৃষক তার কষ্টার্জিত কাঁদা পানিতে লেপ্টে যাওয়া ধান গাছ তোলার ব্যর্থ চেষ্টা করছেন।
ফুলবাড়ীয়া উপজেলা কৃষি অফিস সূত্র জানায়, এ উপজেলায় রোপা আমন রোপন করা হয়েছে ১৯ হাজার ৭শ ৬০ হেক্টা জমিতে। সম্ভাব্য উৎপাদন ধরা হয়েছিল ৮২ হাজার ৯শ ৫০ মেঃ টন ধান। কৃষি অফিস অতি বৃষ্টি ও ঝড়ো হওয়ায় রোপা আমনের ক্ষতি হয়েছে ৩শ ৫০ হেক্টও জমির ধান।
কৃষি বিভাগ থেকে নানা ধরনের প্রনোদনা পাওয়ায় এবার কৃষকরা আমান ধান চাষে নজর দিয়েছিল। কিন্তু ধান তোলার আগ মূহুর্তে অতিবৃষ্টি কৃষকদের হতাশ করেছে। অসময়ে বৃষ্টি ও ঝড়ো হওয়ার কারনে পাকা ও আধা পাকা ধান কাঁদা পানিতে লেপ্টে গেছে। কৃষক ধারনা করছে এবার ধানের চিটার পরিমান বেশি হবে।
সদর উপজেলার কুশমাইল ইউনিয়নের টেকিপাড়া গ্রামের কৃষক মুঞ্জুরুল হক জানান, তার এক একর ধানের মধ্যে প্রায় সবটুকুই নূয়ে পড়েছে। ধান চিটা হওয়ার আশংকা করছেন তিনি। কৃষক আবু বক্কর সিদ্দিক জানান, বৃষ্টির আগে রোপা আমন ধান ক্ষেতে  পোকার আক্রমণ দেখা দিয়ে ছিল। পোকা তাড়াতে না তাড়াতেই অসময়ে বৃষ্টি ও ঝড়ো হাওয়ায় ধান গাছ কাঁদার সাথে পেপ্টে গেছে। আশানুরূপ ফলন থেকে এবার কৃষক বঞ্চিত হবে।
উপজেলা কৃষি অফিসার ড. নাসরিন আকতার বানু জানান, মাঠ জরিপের কাজ চলছে। তবে কিছু ক্ষতি হওয়ার কথা স্বীকার করেন তিনি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ