মঙ্গলবার ২৪ নবেম্বর ২০২০
Online Edition

কমনওয়েলথ শুটিংয়ে সোনাজয়ী সাদিয়া অগ্নিদগ্ধ

স্পোর্টস রিপের্টার : ২০১৩ সালের বাংলাদেশ গেমসে শুটিংয়ে সোনা জিতেন সৈয়দা সাদিয়া সুলতানাকে। দীর্ঘ চার বছর পর কমনওয়েলথ শুটিং চ্যাম্পিয়নশিপের সোনাজয়ীকে পাওয়া গেল এক দুর্ঘটনার মধ্যে দিয়ে। আগুনে শরীরের ২০ শতাংশ পুড়ে গেছে চট্টগ্রামের এই শুটারের। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে তাকে। সাদিয়ার ভাই সৈয়দ সাজ্জাদ খবরটি নিশ্চিত করেন। তিনি জানিয়েছেন, রান্না করতে গিয়ে শরীরে আগুন লাগে সাদিয়ার। ঢাকা মেডিক্যালের বার্ন ইউনিটে শুক্রবার রাতে ভর্তি হওয়া সাদিয়ার অবস্থা জানাতে গিয়ে সাজ্জাদ বলেছেন, ‘অবস্থা এই মুহূর্তে বলা মুশকিল। শরীরের ২০ ভাগ পুড়ে গেছে সাদিয়ার।’ দুর্ঘটনার বর্ণনা দিতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘চুলা থেকে আগুন লাগে তার ওড়নায়। সেখান থেকেই আগুন ছড়িয়ে পড়ে শরীরের বাঁ অংশে।’ আগুনের ঘটনাটা ১৫ অক্টোবরের। সাদিয়াকে ভর্তি করা হয়েছিল চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে। সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য এই শুটারকে পাঠানো হয় ঢাকায়। সাজ্জাদ জানিয়েছেন, সোমবার অস্ত্রোপচার করা হবে তার।২০১০ সালের কমনওয়েলথ শুটিং চ্যাম্পিয়নশিপে ১০ মিটার এয়ার রাইফেলে সোনা জিতেছিলেন সৈয়দা সাদিয়া সুলতানা।ওই বছরই এসএ গেমসেও সোনা জিতেছিলেন তিনি একই ইভেন্টে। এরপর ২০১৩ সালে সবশেষ ১০ মিটার এয়ার রাইফেল থেকে সাফল্য পান বাংলাদেশ গেমসে।এরপর থেকেই শুটিংয়ের বাইরে সাদিয়া। গত চার বছর তিনি আড়ালেই ছিলেন খেলার দুনিয়া থেকে। পরিবারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল তিনি অসুস্থ। যদিও শুটিং থেকে একেবারে মুখ ফিরিয়ে নেয়ার কারণটা রহস্যই থেকে গেছে। সেই রহস্যের মধ্যেই শনিবার হঠাৎ করে জানা যায়, ঢাকা মেডিক্যাল কলেজের বার্ন ইউনিটে ভর্তি কমনওয়েলথ শুটিং চ্যাম্পিয়নশিপের এই সোনাজয়ী।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ