শনিবার ০৪ জুলাই ২০২০
Online Edition

বীর মুক্তিযোদ্ধা ইকবাল হোসেনের মাগফিরাত কামনায় দোয়া অনুষ্ঠিত

বীর মুক্তিযোদ্ধা ইকবাল হোসেনের মাগফিরাত কামনায় জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা পরিষদের উদ্যোগে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শুক্রবার তার নিজ বাসায় অনুষ্ঠিত দোয়া মাহফিলে সভাপতিত্ব করেন জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা পরিষদের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা ইঞ্জিনিয়ার মোসলেম উদ্দিন। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অধ্যাপক হারুন অর রশিদ খান। দোয়া অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন, জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা পরিষদের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা হান্নান হোসেন, মুক্তিযোদ্ধা শামসুদ্দিন, সাব সেক্টর কমান্ডার মোহাম্মাদ ফজলুল। এছাড়াও জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা পরিষদের কেন্দ্রীয় ও মহানগরীর নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
অধ্যাপক হারুন অর রশিদ খান তার বক্তব্যে বলেন, মুক্তিযোদ্ধা ইকবালের মৃত্যুতে শুধু ইসলামী শ্রমণীতি প্রতিষ্ঠার আন্দোলনের একজন মহান নেতাকে হারালো না বরং দেশ এবং জাতি একজন  মহান মুক্তিযোদ্ধা কে হারালো। তিনি বলেন, ইসলামী শ্রমণীতি ও আদর্শ সমাজ কায়েমের জন্য তিনি সারাজীবন সংগ্রাম করে গিয়েছেন। তার আত্মত্যাগ ইসলামী শ্রমনীতির আন্দোলনের নেতা-কর্মীদের জন্য অনুপ্রেরণার উৎস হয়ে থাকবে।
সভাপতির বক্তব্যে মুক্তিযোদ্ধা ইঞ্জিনিয়ার মোসলেম উদ্দিন বলেন, সারা জীবন নিজেকে বাংলার জমিনে ইসলামী শ্রমনীতি প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে নিয়োজিত রেখেছেন। কোন বাতিলের কাছে মাথা নত করেননি।
তিনি বলেন, আওয়ামীলীগ অবৈধভাবে ক্ষমতায় এসে সারাদেশে শত শত শ্রমিক নেতা কর্মীদের গ্রেফতার করে বাংলাদেশ থেকে ইসলামী শ্রমনীতির আন্দোলনকে নিভিয়ে দিতে চেয়েছে। কিন্তু এই মাধ্যমে ইসলামী শ্রমনীতি আন্দোলনের অকুতোভয় কর্মীদের একবিন্দু পরিমাণ বিচলিত করতে পারেনি স্বৈরাচারী সরকার। জনাব ইকবাল একজন মুক্তিযোদ্ধা হয়েও শুধুমাত্র ইসলামী শ্রমনীতি প্রতিষ্ঠার একজন কর্মী হওয়ার কারণে রাষ্ট্র্রীয় কোন মর্যাদা পায়নি, এই নির্মম আচরণের সমোচিত জবাব বাংলাদেশের মাটিতে ইসলামী শ্রমনীতি প্রতিষ্ঠা করেই দিবে। প্রেসবিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ