শনিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

হঠাৎ করে বৃদ্ধি পেয়েছে চুরি- ডাকাতি

গাজীপুর সংবাদদাতা: গাজীপুর শহরের বিভিন্ন স্থানে হঠাৎ করে চুরি ডাকাতি বৃদ্ধি পাওয়ায় শহরবাসীর মধ্যে আতংক সৃষ্টি হয়েছে। গত এক মাসে গাজীপুর শহর ও আশপাশের এলাকায় বেশ কয়েকটি ডাকাতি এবং গ্রীল কেটে দুর্ধর্ষ চুরির ঘটনায় নগরবাসীর মধ্যে এ আতংকের সৃষ্টি হয়। শনিবার রাতে গাজীপুর শহরের হাজীবাগ এলাকায় গাজীপুর ল’ কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ আব্দুর রাজ্জাকের বাড়িতে ডাকাতির ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছনোর আগেই ডাকাতরা ডাকাতি করে পালিয়ে যায়। শনিবার দিবাগত রাত তিনটার দিকে ৭-৮ জনের একদল ডাকাত তার বাসার বারিন্দার গ্রীল কেটে এবং দরজা ভেঙ্গে ঘরের ভিতরে প্রবেশ করে। এক পর্যায়ে ডাকাতরা তাকে মারধর করে দেশীয় অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে রশি দিয়ে হাত-পা বেধে রাখে। পরে ডাকাতরা তার ঘরের আলমারী ভেঙ্গে ২২ ভরি স্বর্ণালংকার, নগদ তের লক্ষাধিক টাকা, মোবাইল সেট ও দামি ঘড়ি নিয়ে যায়। তিনি জানান, রোববার সকালে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। গত ৪ সেপ্টেম্বর রাতে গাজীপুর আদালতের সাবেক (পাবলিক প্রসিকিউটর) পিপি অ্যাডভোকেট আঃ খালেকের বাসায় দুর্র্ধষ ডাকাতি সংঘটিত হয়। গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের চান্দনা চৌরাস্তা সংলগ্ন পশ্চিম নলজানী এলাকায় গ্রেটওয়াল সিটিতে এ ডাকাতির ঘটনা ঘটে। ৭-৮ জনের একদল ডাকাত তাদের বাসার দরজা নক করলে বাসার লোক এসেছে মনে করে খোলে দেয়া হয়। এসময় ডাকাতরা পিস্তল এবং চাপাতি উঁচিয়ে ভয় ভীতি দেখায়। এক পর্যায়ে তারা বাসায় থাকা ৫জনকে ফ্ল্যাটের একটি কক্ষে নিয়ে হাত মুখ বেঁধে জিম্মি করে প্রায় ১৫ ভরি স্বর্ণালংকার ও নগদ এক লাখ ৫৮ হাজার টাকা নিয়ে যায়। এ সময় ডাকাতরা বাসার সমস্ত জিনিসপত্র তছনছ করে ফেলে। এ ঘটনায় জয়দেবপুর থানায় মামলা দায়ের করা হয়। গত ১৮ সেপ্টেম্বর দিবাগত রাতে সিটি কর্পোরেশনের কুদাব এলাকার আফাজ উদ্দিন সরকারের বাড়িতে ৭-৮ জনের একদল ডাকাত দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে বাসার তালা ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করে। পরে বাড়ির লোকজনকে বেধে জিম্মি করে নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকারসহ তিন লক্ষাধিক টাকার মালামাল নিয়ে যায়। একই রাতে পার্শ্ববর্তী  মোঃ জাফর ইকবাল বিপ্লবের বাড়িতে ডাকাতি সংঘটিত হয়। ওই বাড়ি থেকে ডাকাতরা পরিবারের সদস্যদের জিম্মি করে নগদ অর্থ স্বর্ণালংকার ও মূল্যবান জিনিসপত্রসহ প্রায় দেড় লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে য়ায়। গত ২১ সেপ্টেম্বর রাতে মুখোশধারী একদল ডাকাত গাজীপুর শহরের ভুরুলিয়া এলাকার আদর্শপাড়ায় সাবেক কাস্টমস কর্মকর্তা মুক্তিযোদ্ধা কফিল উদ্দিনের বাড়িতে হানা দেয়। ডাকাতরা পরিবারের সবাইকে বেধে জিম্মি করে স্বর্ণালংকার ও মূল্যবান জিনিষপত্র নিয়ে যায়। গত ১৮ সেপ্টেম্বর রাতে গাজীপুর জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট সুদীপ কুমার চক্রবর্তীর বাসার জানালার গ্রীল কেটে স্বর্নালংকার ও মূল্যবান জিনিষ নিয়ে যায় দূর্বৃত্তরা। গত ৩০ আগস্ট সিটি কর্পোরেশনের মেঘডুবি কুদাব এলাকায় আবু হাসান ও আরিফুল ইসলামের বাড়িতে ডাকাতি সংঘটিত হয়। এছাড়া সিটি কর্পোরেশনের পুবাইল এলাকায় গত ৩০ জুলাই সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মাসুদুর রহমানের বাড়িতে ডাকাতি হয়। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করে হয়েছে। ২৭ জুলাই কামারগাঁও মুক্তিযোদ্ধা মিজানুর রহমান মাষ্টারের বাড়িতে, শহরের পোস্ট অফিস রোডে মিজানুর রহমানের বাড়িতে, একই রোডে আসক কার্যালয়ে দুর্ধর্ষ চুরি সংঘটিত হয়। চোরেরা শহরের বিভিন্ন স্থান থেকে বেশ কিছু মোটরসাইকেলও চুরি করে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এসব চুরি ও ডাকাতি রোধে শহরের বিভিন্ন এলাকায় এলাকার বাসিন্দারা নিজস্ব উদ্যোগে নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করেছেন। এ ব্যাপারে গাজীপুর সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. সাখাওয়াত হোসেন বলেন, ডাকাতি রোধে পুবাইল এলাকায় কমিনিউটিং পুলিশ গঠন করে রাত্রি কালীন পাহাড়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। শহরে পুলিশের তৎপরতা বৃদ্ধি করা হয়েছে। আশা করছি জড়িতরা দ্রুত সময়ের মধ্যে গ্রেফতার হবে। জয়দেবপুর থানার ওসি মোঃ আমিনুল ইসলাম জানান, সাম্প্রতিক সময়ে গাজীপুর শহর ও আশপাশে কয়েকটি ঘটনা ঘটেছে। এসব ঘটনায় পুলিশ মামলা নিয়েছে এবং অপরাধীদের গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে। দ্রুততম সময়ে অপরাধীদের গ্রেফতার করা হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ