বুধবার ০৫ আগস্ট ২০২০
Online Edition

খুলনায় সহকর্মীকে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ করলেন রোটারিয়ান রেজা

খুলনা অফিস : খুলনা মহানগরীতে রোটারী ক্লাব অব রূপসার নারী সদস্যকে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ করলেন  রোটারী ক্লাব মহানগরের সদস্য  রেজাউল করিম খান ওরফে খান  রেজা (৩২)। এ ঘটনায় ওই নারী সদস্য মঙ্গলবার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ ট্রাইব্যুনালে  রেজাউল করিম খানের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ সংশোধীত ২০০৩ এর ৯ (১)/৩০ ধারায় মামলা দায়ের করেছেন। মামলাটি ট্রাইব্যুনালের বিচারক  মো.  রেজাউল করিম আমলে নিয়ে খুলনা থানার অফিসার ইনচার্জকে ৭দিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলে নির্দেশ প্রদান করেছেন।

মামলার বিবরণে জানা যায়,  রোটারী ক্লাবের সদস্য হয়ায় নগরীর টিবি ক্রস  রোডের ওই নারীর সাথে পরিচয় হয় খালিশপুর হালদার পাড়ার  সেলিম মিয়ার  ছেলে  রোটারীয়ান  রেজাউল করিম খান ওরফে খান  রেজার (৩২)। ক্লাবের বিভিন্ন কাজের ফাঁকে  রেজা বিয়ের প্রস্তাব  দেয় ওই নারীকে। এ কথা শুনে ওই নারী জানায় তার স্বামী-সন্তান রয়েছে। কিন্তু নারী পিপাসু  রেজা তার পিছু ছাড়ে না। ২০১৬ সালের ২৫  মে ওই নারী ঝিনাইদহে পিত্রালয়ে যায়। ওই দিন  রেজা তাকে কুষ্টিয়া আসতে বলে ক্লাবের কাজে। তিনি  সেখানে  গেলে তাকে  কোর্টে নিয়ে তার স্বামীকে ডিভোর্স করিয়ে  দেয়। পরে ৩জুন তাকে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে  রেজা কলকাতায় নিয়ে যায়।  সেখানে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে একাধিকারবার ধর্ষণ করে  রেজা।  দেশে ফিরে এসে  রেজা কলকাতার ঘটনা ইন্টারনেটে  ছেড়ে  দেয়ার ভয়  দেখিয়ে বিভিন্ন সময় একাধিকারবার ধর্ষণ করে। এবার ওই নারী বিয়ের জন্য চাপ দিলে ১৯ ডিসেম্বর  রেজা তার  জোড়াগেটস্থ অফিসে  ডেকে নিয়ে তার বন্ধু নগরীর  গোবরচাকার মৃত আকরাম মুন্সির  ছেলে হাসিব বিল্লাহসহ ২/৩জনের সামনে হুজুর  ডেকে বিয়ে করে। এরপর  থেকে তারা স্বামী-স্ত্রী হিসেবে বসবাস করতে থাকে। চলতি বছরের ৮আগস্ট তাদের  শেষ  দেখা হয়। এরপর  থেকে  রেজা ওই নারীর সাথে সম্পর্ক ছিন্ন করে; বলে ‘তুই আমার স্ত্রী না’। এ ঘটনায় ওই নারী মামলা দায়ের করেছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ