শনিবার ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১
Online Edition

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে যানজট অব্যাহত ॥ চরম দুর্ভোগ

জাহাঙ্গীর আলম, কালিয়াকৈর : ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের গাজীপুরের পয়েন্টে   রোববার সকাল থেকেই কখনো থেমে থেমে, কখনো তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়েছে। ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের জয়দেবপুর-চন্দ্রা অংশে কোনাবাড়ী বাইমাইল থেকে সফিপুর বাজার হয়ে চন্দ্রা এবং চন্দ্রা থেকে টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলার গোড়াই পর্যন্ত ৩০ কিলোমিটার এলাকায় ধীরগতিতে চলছে যানবাহন। চন্দ্রা ত্রিমোড়ে মহাসড়কের জোড়াতালির কাজ চলমান থাকায় এ যানজট আরও স্থায়ী হয়।
মহাসড়কের বিভিন্ন অংশে ভাঙ্গাচুড়া, এলোমেলো যানবাহন চলাচল, অবৈধ অটোরিক্সা ও অতিরিক্ত যানবাহনের চাপের কারণে এই যানজটের সৃষ্টি হয়। এতে দুর্ভোগে পড়েছেন যাত্রী ও পরিবহন শ্রমিকরা।
যাত্রী, পরিবহন শ্রমিক ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের গাজীপুরের বিভিন্ন অংশ ভাঙ্গাচুরা থাকায় যানবাহন চলাচলের গতি পাচ্ছে না। ফলে মহাসড়কের গাজীপুরের কোনাবাড়ি ও কালিয়াকৈর উপজেলার মৌচাক, সফিপুর, পল্লিবিদ্যুৎ, চন্দ্রা, সাহেববাজার বাইবাসসহ বিভিন্ন পয়েন্টে পয়েন্টে যানজটের সৃষ্টি হয়। মহাসড়কের বিভিন্ন অংশে ভাঙ্গাচুরা,এলোমেলো যানবাহন চলাচল, সড়কে অবৈধ অটোরিক্সা, এলোমেলো পাকিং ও অতিরিক্ত যানবাহনের চাপের কারণে গত শনিবার সকাল থেকেই যানজটের সৃষ্টি শুরু হয়। ওই যানজট কখনো থেমে থেমে কখনো আবার তীব্র আকার ধারণ করে। রোববার পর্যন্ত ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের গাজীপুরের ভোগড়া বাইপাস থেকে কোনাবাড়ী হয়ে  কালিয়াকৈর উপজেলার চন্দ্রা থেকে টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলা গোড়াই পর্যন্ত ৩০ কিলোমিটার এবং কালিয়াকৈর-নবীনগর সড়কের উপজেলার চন্দ্রা থেকে বাইপাইল এলাকা পর্যন্ত ১৫ কিলোমিটার ওই যানজট অব্যাহত রয়েছে। যানজট নিরসনে মহাসড়কের কালিয়াকৈর উপজেলার কয়েকটি পয়েন্টে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। তবে তাদের তেমন কোনো ভুমিকা পালন করতে দেখা যায়নি। পুলিশের দাবি অতিরিক্ত যানবাহনের চাপ থাকায় এই যানজট হয়। তবে সড়কে ট্রাক ও লড়ি সবচেয়ে বেশি লক্ষ্য করা গেছে। যানজটে আটকে পড়ে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয় যাত্রী ও পরিবহন শ্রমিকদের। ফলে এবারের ঈদের আরও বেশি ভোগান্তির আশঙ্কা করছেন ওই মহাসড়কে চলাচলরত যাত্রী ও পরিবহন শ্রমিকরা।
সালনা/কোনবাড়ী হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী মোহাম্মদ হোসেন সরকার জানান, যানবাহনের অতিরিক্ত চাপের কারণে শনিবার সকাল থেকেই যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। এছাড়ার রাতভর বৃষ্টির কারণে মহাসড়কে পাশ দিয়ে গাড়ী সাইড নিতে অসুবিধা হওয়া রোববার যাজটের সৃষ্টি হয়। চন্দ্রায় মহাসড়কে সংস্কার কাজ করায় যানবাহন চলাচল কিছুটা বিঘিœত হয়। তবে যানজট নিয়ন্ত্রণে হাইওয়ে পুলিশ কাজ করে যাচ্ছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ