সোমবার ০১ জুন ২০২০
Online Edition

বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া প্রথম টেস্ট আজ মিরপুরে শুরু

রফিকুল ইসলাম মিঞা : আজ শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়ার মধ্যকার দুই টেস্ট সিরিজের প্রথম টেস্ট। মিরপুর স্টেডিয়ামে সকাল ১০ টায় শুরু হবে প্রথম টেস্টটি। বাংলাদেশ টেলিভিশন ম্যাচটি সরাসরি সম্প্রচার করবে। বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়ার দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজ নিয়ে ইতোমধ্যে ক্রিকেট বিশ্বে আলোচনার ঝড় বইছে। ক্রিকেটে অস্ট্রেলিয়া অনেক শক্তিশালী দল হলেও এবার ভয় পাচ্ছে বাংলাদেশকে নিয়ে। টেস্টে এবার এই সুযোগটা কাজে লাগাতে চায় স্বাগতিক বাংলাদেশ। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টেস্টে জয়ের স্বপ্নও দেখছে এবার টাইগাররা। ফলে বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া টেস্ট সিরিজ লড়াইটা যে কঠিন হবে তা বলাই যায়। প্রায় ১১ বছর পর বাংলাদেশ সফরে এসেছে অস্ট্রেলিয়া। ১১ বছর আগের বাংলাদেশ এখন অনেক শক্তিশালী দল। ফলে এই সফরে অস্ট্রেলিয়াতে অনেক চিন্তা ভাবনা করেই এগুতে হচ্ছে। এর আগে বাংলাদেশ সফরে আসার কথা থাকলেও নিরাপত্তার অযুহাত দেখিয়ে বাংলাদেশ সফরে আসেনি দলটি। এবারও অনেক নাটকীয়তার পরই বাংলাদেশ সফরে এসেছে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল। ফলে নিজ মাটিকে অস্ট্রেলিয়াকে টেস্টে হারিয়ে নিজেদের শক্তির প্রমাণ দিতে চায় বাংলাদেশ দল।

টেস্টে বাংলাদেশ থেকে সব দিকেই এগিয়ে সফরকারীরা। শক্তি আর পরিসংখ্যান কোন দিকেই অস্ট্রেলিয়ার ধারে কাছে নেই বাংলাদেশ। তারপরও বাংলাদেশকে নিয়ে ভয়ে আছে অস্ট্রেলিয়া। আর এই সুযোগটাই কাজে লাগানোর অপেক্ষায় আছে টাইগাররা। টেস্ট ক্রিকেট ইতিহাসে এখন পর্যন্ত মাত্র চারবার মুখোমুখি হয়েছে বাংলাদেশ ও অস্ট্রেলিয়া। প্রথমবার অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে এবং দ্বিতীয়বার বাংলাদেশের মাটিতে দুই ম্যাচের দু’টি দ্বিপক্ষীয় সিরিজে অংশ নেয় দল দুটি। সবক’টিতেই জিতেছে অসিরা। তবে তিনবারই ইনিংস ব্যবধানে হারে বাংলাদেশ। অবশ্য একটি টেস্টে বাংলাদেশ জয়ের স্বপ্ন দেখেছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশ হেরে যায় তিন উইকেটে। ২০০৩ সালে অস্ট্রেলিয়া সফরে গিয়ে প্রথমবারের মত তাদের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ খেলে আসে বাংলাদেশ। অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে দু’টি টেস্ট অনুষ্ঠিত হয়েছিলো ডারউইন ও  কেয়ার্নসে। ২০০৩ সালে প্রথমবারের মত মুখোমুখি হয় বাংলাদেশ ও অস্ট্রেলিয়ায়। স্বাগতিক হিসেবে দুই ম্যাচের সিরিজ ২-০ ব্যবধানে জিতে নেয় অসিরা। এরপর ২০০৬ সালে নিজেদের মাটিতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে খেলতে নামে বাংলাদেশ। ঐ সিরিজটিও ২-০ ব্যবধানে হারে টাইগাররা। ২০০৩ সালে সিরিজের প্রথম ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হয় অস্ট্রেলিয়ার ডারউইনে। সিরিজের প্রথম  টেস্ট ইনিংস ও ১৩২ রানের ব্যবধানে জিতেছিলো অস্ট্রেলিয়া। সিরিজের দ্বিতীয়  টেস্টেও বড় ব্যবধানে হারে বাংলাদেশ। ইনিংস ও ৯৮ রানের ব্যবধানে জয় পায় অসিরা। ২০০৬ সালে বাংলাদেশের মাটিতে প্রথমমবারের মত টেস্ট সিরিজ খেলে অস্ট্রেলিয়া। ফতুল্লায় সিরিজের প্রথম ম্যাচে অস্ট্রেলিয়াকে হারানোর সুযোগ পেয়েও, তা কাজে লাগাতে পারেনি বাংলাদেশ। রিকি পন্টিংয়ের অধিনায়কোচিত ইনিংস, অসিদের ৩ উইকেটের জয় এনে দেয় দলটিকে। ১১৮ রানে অপরাজিত থাকেন পন্টিং। এরপর চট্টগ্রামে দ্বিতীয় টেস্ট ইনিংস ও ৮০ রানের ব্যবধানে জিতে সিরিজে নিজেদের করে রাখে অস্ট্রেলিয়া। ২০০৬ সালের পর আর কোন দ্বিপাক্ষিক টেস্ট সিরিজে অংশ নেয়নি বাংলাদেশ ও অস্ট্রেলিয়া। তাই বহুল প্রতিক্ষার পর আবারো দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে আজ মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া। প্রথম টেস্ট নিয়ে উভয় দলই জয়ের ব্যাপারে বেশ আশাবাদি। অস্ট্রেলিয়াকে হারানোর জন্য বাংলাদেশ ব্যবহার করতে পারে স্পিন শক্তি। তবে এটা ঠেকিয়ে নিজেদের আধিপত্য ধরে রাখতে পেস নির্ভও অস্ট্রেলিয়াও এবার স্পিন নিয়ে বেশ কাজ করছে। ফলে দুটি দলই নিজেদেও আত্মবিশ্বাস ধরে রেখেই মাঠে নামবে। প্রথমবারের মতো আজ ঢাকার মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে টেস্ট খেলতে নামবে দু’দল। এর আগে অস্ট্রেলিয়া বাংলাদেশে এসে দুটি টেস্ট খেললেও মিরপুর স্টেডিয়ামে হয়নি কোন ম্যাচ। ২০০৬ সালে বাংলাদেশ সফরে এসে অস্ট্রেলিয়া দু’টি টেস্ট খেলেছিল নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে ও চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামে। ফলে প্রথমবার আজ মিরপুরে মুখোমুখি হবে দল দুটি। মিরপুরে আজ প্রথম টেস্টকে নিয়ে বৃষ্টির শংকাও আছে। কারণ কয়েকদিন ধরেই সারা দেশে বৃষ্টি হচ্ছে। আবহাওয়ার যে খবর তাতে প্রথম টেস্টে এই কয়দিন বৃষ্টি হওয়ার কথা রয়েছে। ফলে এই টেস্টে বৃষ্টির ভয়টাই এখন সবার চেয়ে বেশি।  

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ